কুড়িগ্রামে কমেছে নদ-নদীর পানি, দেখা দিয়েছে ভাঙন

  

পিএনএস ডেস্ক : নদ-নদীগুলোতে পানি কমতে শুরু করায় কুড়িগ্রামের বন্যা পরিস্থিতির উন্নতি হতে শুরু করেছে। তবে ধীরগতিতে কমায় বাড়িঘর থেকে পানি পুরোপুরিভাবে সরে যায়নি। ফলে পানিবন্দী দশা থেকে মুক্তি পাননি অনেক পরিবার।

এদিকে পানি কমার সাথে সাথে আবারও শুরু হয়েছে ভাঙন। গত দুই দিনে বিভিন্ন এলাকায় ১০৮টি পরিবার ভিটেমাটি হারিয়ে গৃহহীন হয়েছেন।


স্থানীয় পানি উন্নয়ন বোর্ড সূত্র জানিয়েছে, শনিবার সকালে ধরলা নদীর পানি প্রবাহ ফেরীঘাট পয়েন্টে বিপদসীমার ১৩ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছিল। শুক্রবার সকাল ৬টা থেকে শনিবার সকাল ৬টা পর্যন্ত গত ২৪ ঘন্টায় ধরলার ফেরীঘাট পয়েন্টে ৯ সেন্টিমিটার, তিস্তার কাউনিয়া পয়েন্টে ৭ সেন্টিমিটার এবং ব্রহ্মপুত্রের চিলমারী পয়েন্টে ৩ সেন্টিমিটার ও নুনখাওয়া পয়েন্টে ৭ সেন্টিমিটার পানি কমেছে। এছাড়া ব্রহ্মপুত্র ও তিস্তা নদীর পানি বিপদসীমার অনেক নিচ দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।


সদর উপজেলার পাঁচগাছি ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো. দেলোয়ার হোসেন জানিয়েছেন, তার ইউনিয়নের ধরলা নদী পাড়ের কদমতলা, সিতাইঝাড়, ছত্রপুর, নওয়াবস, ওয়াপদা বাজার ও গারুহারা-এই ৬টি গ্রাম প্লাবিত হওয়ায় অর্ধ সহস্রাধিক পরিবারের প্রায় আড়াই হাজার মানুষ পানিবন্দী হয়ে পড়েছেন। নদীতে পানি কমলেও পরিবারগুলো পানিবন্দী দশা থেকে এখনও মুক্তি পায়নি।


তিনি আরও জানান, পানি কমার সাথে সাথে শুরু হয়েছে ভাঙন। গত দু’দিনে ধরলার ভাঙনে কদমতলা এলাকায় ২৫টি এবং ওয়াপদা বাজার এলাকায় ১৫টিসহ মোট ৪০টি পরিবার ভিটেমাটি হারিয়েছেন।


এদিকে সদর উপজেলার যাত্রাপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো. আইয়ুব আলী সরকার জানিয়েছেন, গত দু’দিনে তার ইউনিয়নে দুধকুমার নদীর ভাঙনে চর যাত্রাপুর গ্রামে ২০টি, ভগবতীপুরে ১০টি, ফারাজীপাড়ায় ৬টি ও গারুহারা গ্রামে ৩টি এবং ব্রহ্মপুত্রের ভাঙনে শিবেরপাতি গ্রামে ১৩টি ও খাসের চরে ১৬টি মোট ৬৮টি পরিবার ভিটেমাটি হারিয়ে নি:স্ব হয়েছে। পরিবারগুলো বিভিন্ন জায়গায় কোনরকমে মাথাগুঁজে মানবেতর জীবনযাপন করছেন।


এ প্রসঙ্গে সদর উপজেলার ভারপ্রাপ্ত নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মইনুল ইসলাম জানান, বন্যার্তদের সহায়তা দেওয়ার জন্য বরাদ্দ চাওয়া হয়েছে। এছাড়া ভাঙনে নি:স্ব পরিবারগুলোর তথ্য সংগ্রহ করা হচ্ছে। তাদেরও প্রয়োজনীয় সহায়তা দেওয়ার ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

পিএনএস/এসআইআর


 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন