চাঁদপুরে শামীম গাজী হত্যাকাণ্ডে আসামি ২৫৯, আটক ৬

  

পিএনএস ডেস্ক : চাঁদপুর শহরের পুরানবাজারে আধিপত্য বজায় রাখা ও মাদক বিক্রির ঘটনাকে কেন্দ্র করে ১ ও ২নং ওয়ার্ড যুবলীগের সংঘর্ষে নিহত পথচারী শামীম গাজীর পিতা মোঃ তাজুল ইসলাম বাদী হয়ে চাঁদপুর মডেল থানায় ৯ জনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত ২৫০ জনকে আসামি করে মামলা দায়ের করেছেন। চাঁদপুর মডেল থানায় দায়েরকৃত মামলা নং-৪।

এদিকে এই হত্যার ঘটনাকে কেন্দ্র করে চাঁদপুর মডেল থানা পুলিশের অভিযান চালিয়ে পুরানবাজার এলাকা থেকে ৬ জনকে আটক করেছে। আটককৃতদের সকল তথ্য যাচাই-বাছাই করে ৪জনকে মামলার আসামি করা হয়। বাকিদের যাচাইপূর্বক ছেড়ে দেয়া হবে বলে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার চাঁদপুর সদর সার্কেল জানান।

গতকাল ২ জুলাই বিকেলে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার চাঁদপুর সদর সার্কেল জাহেদ পারভেজ চৌধুরী জানান, শামীমের মৃত্যুর ঘটনায় জহির খানকে ১নং, রাসেল পাটওয়ারীকে ২নং আসামি করে ৯ জনের নাম উল্লেখ করে নিহত শামীমের পিতা মোঃ তাজুল ইসলাম বাদী হয়ে এ মামলা করেন। মামলায় আরো অজ্ঞাতনামা ২৫০ জনকে আসামি করা হয়।

উল্লেখ্য, চাঁদপুর শহরের পুরানবাজার মেরকাটিজ রোডে ২৯ জুন রাত সাড়ে ৮টায় মাদক বিক্রির ঘটনায় দু'গ্রুপের সংঘর্ষে পথচারী শামিম গাজী (২৪) নামে এক যুবক নিহত হয়েছেন। সংঘর্ষ চলাকালীন পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ ১০ রাউন্ড শর্টগানের গুলি ছোঁড়ে। এ সময় প্রতিপক্ষের ছোঁড়া ইট শামীমের মাথা ও ঘাড়ে লাগে। বাড়িতে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে শামীম অতিরিক্ত রক্তবমি করলে তাকে চাঁদপুর সদর হাসপাতালে নিয়ে যায়। কর্তব্যরত চিকিৎসক অবস্থার অবনতি দেখলে শামীমকে ঢাকা মেডিকেলে প্রেরণ করেন। গত মঙ্গলবার তিনি চিকিৎসাধীন অবস্থায় ঢাকা মেডিকেলে মৃত্যুবরণ করেন।

শামীমের পিতা তাজু সরদার জানান, প্রতিদিনের ন্যায় তার ছেলে সকালবেলা দুপুরের খাবার হাতে নিয়ে বাড়ি থেকে বের হয়ে কর্মস্থল হোটেল গ্রান্ড হিলশায় যায়। সে ওই হোটেলে রিসিপশনে দায়িত্বে ছিল। রাতে বাড়ি ফেরার পথে সংঘর্ষের মাঝে পড়ে যায়। অন্ধকারে কোন এক পক্ষ তাকে বেদম পিটিয়ে আহত করে।

হোটেল গ্রান্ড হিলশার স্বত্বাধিকারী মোরশেদ আলম জানান, এই হোটেলের সবচেয়ে নম্র-ভদ্র এবং দায়িত্বশীল শামীম গাজী। প্রতিদিনের মতো রোববার সকালে ডিউটিতে আসে এবং রাতে সাড়ে ৮টার দিকে ছুটি নিয়ে বাড়িতে যায়। যারা এই নিষ্পাপ ছেলেটিকে হত্যা করেছে আমি তাদের বিচার দাবি করছি।

মাদক নির্মূল এবং সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে প্রশাসনের সাঁড়াশি অভিযান এবং নিহত শামীম গাজী হত্যায় দোষীদের শাস্তি দাবি করেন এলাকাবাসী।

পিএনএস/এসআইআর

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন