৫ সাংবাদিকের ওপর হামলা: প্রকৌশলী আটক

  

পিএনএস ডেস্ক : সিরাজগঞ্জে পাঁচ সাংবাদিকের ওপর সন্ত্রাসী হামলার ঘটনায় বুধবার রাতে ডলি কনস্ট্রাকশনের প্রকৌশলী আমিনুল ইসলামকে (৩৫) পুলিশ আটক করেছে।

এ বিষয়ে সিরাজগঞ্জ সদর থানার ওসি মো. হাফিজুর রহমান জানান, এ ঘটনায় বুধবার বিকেলে বাংলানিউজ টুয়েন্টি ফোর ডটকমের সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি স্বপন চন্দ্র দাস বাদী হয়ে প্রকৌশলী আমিনুল ইসলামকে প্রধান আসামি করে পাঁচজনের নাম উল্লেখসহ অজ্ঞাত আরো ২০/২৫ জনের বিরুদ্ধে সিরাজগঞ্জ সদর থানায় একটি মামলা করেন।

তিনি বলেন, ডলি কনস্ট্রাকশনের প্রকৌশলী আমিনুল ইসলামকে এ মামলায় আটক করা হয়েছে।

তিনি আরো জানান, সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলার শিয়ালকোল ইউনিয়নের খামার পাইকোশা গ্রামে প্রায় সাত কোটি টাকা ব্যয়ে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের (এলজিইডি) আওতায় একটি পাকা রাস্তা নির্মাণ চলছিল। এ কাজে অনিয়মের সংবাদ সংগ্রহে গিয়ে বুধবার বিকেলে পাঁচ সাংবাদিক ঠিকাদারের সন্ত্রাসী বাহিনীর হামলায় গুরুতর আহত হন। আহতদের উদ্ধার করে সিরাজগঞ্জ বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

আহতরা হলেন, এনটিভির সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি শরীফুল ইসলাম ইন্না, এসএ টিভির সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি রহমত আলী, বাংলানিউজ টুয়েন্টি ফোর ডটকমের স্বপন চন্দ্র দাস, ডেইলি ইনডিপেনডেন্ট এর নজরুল ইসলাম ও দৈনিক যায়যায়দিনের মোকাদ্দেস আলী।

এ বিষয়ে আহত সাংবাদিক স্বপন চন্দ্র দাস ও মোকাদ্দেস আলী জানান, সিরাজগঞ্জ সদর উপজেলার শিয়ালকোল ইউনিয়নের খামার পাইকোশা গ্রামের একটি রাস্তার নির্মাণকাজ চলছিল। রাস্তাটি নির্মাণকাজে বিভিন্ন অনিয়মের অভিযোগ তোলেন স্থানীয় এলাকাবাসী। এ অভিযোগের ভিত্তিতে এ দিন বিকেলে ঘটনাস্থলে গিয়ে ছবি ও ভিডিও ধারণ করার সময় ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান ডলি কনস্ট্রাকশনের প্রকৌশলী আমিনুল ইসলামের নির্দেশে শিয়ালকোল ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ড সদস্য হাফিজুল ইসলাম, তার ভাই আল মাহমুদ ও ভাতিজা অন্তরের নেতৃত্বে একদল সশস্ত্র সন্ত্রাসী বেধড়ক মারপিট করে গুরুতর আহত করে। এ সময় এলাকাবাসী আমাদের উদ্ধারে এগিয়ে এলে সন্ত্রাসীরা তাদেরও বেধড়ক মারধর করে। এতে নারীসহ পাঁচ গ্রামবাসী আহত হন। খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গেলে সন্ত্রাসীরা পালিয়ে যায়।

পিএনএস-জে এ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন