লক্ষ্মীপুরে ইউপি মেম্বার কারাগারে

  

পিএনএস, লক্ষ্মীপুর প্রতিনিধি : সরকারী কাজে বাধাদান ও কমকর্তাদের মারধর করার ঘটনায় লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার কুশাখালী ইউনিয়ন পরিষদের ৭নং ওয়ার্ড মেম্বার মো: জামাল হোসেন গ্রেফতার করে বৃহস্পতিবার দুুপুরে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করে পুলিশ।
এর আগে এ ঘটনায় তার বিরুদ্ধে চন্দ্রগঞ্জ থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়। মেম্বার নলডগী গ্রামের নুরুল ইসলামের পুত্র।

এ ব্যাপারে আমার বাড়ি আমার খামারের লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলা সমন্বয়ক মো: সোলায়ান জানান, ইউপি মেম্বার জামাল হোসেন বিগত ২০১৬ সালে তার মা ও ভাতিজার নামে ৪০ হাজার টাকা ঋণ নেয়। কিন্তু একটি টাকা পরিশোধ করেনি। বিভিন্ন সময় ঋণের টাকা জন্য মাঠ কর্মকর্তারা গেলে সেই টালবাহানা শুরু করে।

ঘটনার দিন বুধবার আমার বাড়ি আমার খামারের জুনিয়র অফিসার (মাঠ) আলী আহমদ সহ অন্যান্য কর্মকর্তারা তার কাছে ঋনের চাইলে সেই তাদের অকথ্য ভাষা গালিগালাজ করে।
এক পর্যায়ে মেম্বার ও তার লোকজন আমাদের কর্মকর্তা আলী আহমদ সহ অন্যান্য মারধর করে। খবর পেয়ে আমরা প্রশাসনের লোকজন কে অবহিত করে।

পরে তাদের নির্দেশে পুলিশ গিয়ে মেম্বার জামাল হোসেন কে আটক করে থানায় নিয়ে আসে। এ ঘটনায় হামলায় আহত কর্মকর্তা আলী আহমদ বাদী হয়ে চন্দ্রগঞ্জ থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শফিকুর রিদোয়ান আরমান শাকিল বলেন, ঋণ নিয়ে টাকা না দিয়ে উল্টো কর্মকর্তাদের গালিগালাজ ও মারধরের ঘটনায় তাৎক্ষনিক পুলিশ পাঠিয়ে মেম্বার কে আটক করা হয়। পরে তার বিরুদ্ধে থানায় নিয়মিত আইনে একটি মামলা দায়ের করা হয়।
চন্দ্রগঞ্জ থানায় ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জসিম উদ্দিন বলেন, এ ঘটনার সাথে জড়িত মেম্বার কে গ্রেফতার করা হয়। পরে থানায় মামলা দায়ের করার পর তাকে গ্রেফতার দেখিয়ে বৃহস্পতিবার দুপুরে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়।

পিএনএস/মো: শ্যামল ইসলাম রাসেল

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন