চলন্ত বাসে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রীর শ্লীলতাহানির চেষ্টা

  

পিএনএস ডেস্ক : চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ছাত্রীকে যাত্রীবাহী বাসে (ক্যাম্পাসগামী ৩ নম্বর) শ্লীলতাহানির চেষ্টা করেছেন এক যাত্রী। আজ রোববার সকালে ক্যাম্পাসের এক নম্বর গেট এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। শিক্ষার্থীরা ওই যাত্রীকে আটক করে প্রক্টরিয়াল বডির সদস্যদের কাছে হস্তান্তর করেন। পরে প্রক্টরিয়াল বডির সদস্যরা তাঁকে পুলিশের কাছে সোপর্দ করেন।

অভিযুক্ত যাত্রীর নাম মো. মানিক মিয়া। তাঁর বাড়ি হাটহাজারী উপজেলার মন্দাকিনী এলাকায়।


ভুক্তভোগী ওই শিক্ষার্থী বলেন, ‘এক বান্ধবীসহ আমি মুরাদপুর থেকে বাসে উঠেছিলাম। ওই যাত্রী আমার পেছনে বসে ছিলেন। তিনি বেশ কয়েকবার আমার গায়ে হাত দেন। প্রথমে ভেবেছিলাম ভুলবশত এমন হয়েছে। কিন্তু পরে দেখলাম, তিনি ইচ্ছা করে গায়ে হাত দিয়েছেন। এরপর আরও কয়েকজন শিক্ষার্থী মিলে ওই যাত্রীকে প্রক্টরিয়াল বডির কাছে নিয়ে আসি। এ ঘটনায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছি।’

এ বিষয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রক্টর এস এম মনিরুল হাসান বলেন, যাত্রী মানিক মিয়াকে পুলিশের কাছে সোপর্দ করা হয়েছে। ওই ছাত্রীর লিখিত অভিযোগ থানায় পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে। তাঁর বিরুদ্ধে আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

তবে লিখিত অভিযোগ এখনো পাননি বলে জানান হাটহাজারী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মাসুদ আলম। তিনি বলেন, এক যাত্রীকে আটক করা হয়েছে। তবে ওই ছাত্রী মামলা করেননি। আর লিখিত অভিযোগ হাতে পেলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

গত ২৭ নভেম্বর এই বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ছাত্রীকে যাত্রীবাহী বাসে শ্লীলতাহানির চেষ্টা করেন চালকের দুই সহকারী। ঘটনার তিন দিন পর ওই বাসের চালক ও তাঁর দুই সহকারীকে আটক করে পুলিশের গোয়েন্দা বিভাগ।

পিএনএস-জে এ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন