যমজ দুই মেয়েকে ধর্ষণের কথা স্বীকার করল বাবা

  

পিএনএস ডেস্ক: গাজীপুরের শ্রীপুরে এক বাবার বিরুদ্ধে জমজ দুই কিশোরী মেয়েকে দিনের পর দিন ধর্ষণের অভিযোগ উঠেছে।

শুক্রবার (১৩ সেপ্টেম্বর) রাতে শ্রীপুর থানায় কিশোরীদের মা তাদের বাবাকে আসামি করে মামলা করেন। মায়ের মামলার পর রাতেই অভিযুক্ত বাবাকে (৪৫) গ্রেফতার করে পুলিশ।

দুই কিশোরীর মা বলেন, প্রায় ২৫ বছর আগে আমাদের বিয়ে হয়। আমাদের সংসারে যমজ দুই কন্যাসন্তানের জন্ম হয়। পরে আমার অনুমতি ছাড়াই আরও দুটি বিয়ে করেন স্বামী। বিয়ের পরপরই আমাকে বাবার বাড়ি পাঠিয়ে দেয়া হয়। সেই থেকে যমজ সন্তানদের নিয়ে বাবার বাড়িই বসবাস করে আসছি আমি। স্বামী আমাদের ভরণ-পোষণের খরচ বহন না করলেও আমার সঙ্গে মেলামেশা ও দেখা সাক্ষাৎ করতো।

এরই মধ্যে নানা ভয়ভীতি দেখিয়ে ২০১৭ সালের মে থেকে গত ২৮ জুলাই পর্যন্ত বাবার বাড়ি আমার দুই কিশোরী মেয়েকে ধর্ষণ করেছে স্বামী। ২-৩ দিন পরপর আমার বাবার বাড়িতে গিয়ে মেলামেশা করত স্বামী। একদিন আমার সামনে দুই মেয়েকে ধর্ষণ করে সে। এ বিষয়ে কাউকে বললে আমাদের মেরে ফেলার হুমকি দেয়।

শ্রীপুর থানা পুলিশের উপপরিদর্শক (এসআই) মিনহাজ উদ্দিন বলেন, এ ঘটনায় দুই কিশোরীর মা বাদী হয়ে স্বামীর বিরুদ্ধে শুক্রবার রাতে থানায় মামলা করেছেন। ওই রাতেই অভিযুক্ত বাবাকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

শ্রীপুর থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. লিয়াকত আলী বলেন, দুই কিশোরীর বাবার বিরুদ্ধে ধর্ষণ ছাড়াও ডাকাতি ও মাদক সেবনের অভিযোগ রয়েছে। সে খুব হিংস্র প্রকৃতির। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে দুই মেয়েকে ধর্ষণের কথা স্বীকার করেছে।

কিশোরীদের স্বাস্থ্য পরীক্ষার জন্য গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে বলে জানান তিনি।

পিএনএস/এএ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech