পতাকা বিক্রি করে জীবিকা নির্বাহ করেন আজিম

  

পিএনএস, ডিমলা (নীলফামারী) প্রতিনিধি : জাতীয় পতাকা বিক্রি করে মানুষের মাঝে দেশপ্রেম জাগিয়ে তোলার পাশাপশি পরিবারের জন্য জীবিকা নির্বাহ করেন আজিম। মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসকে সামনে রেখে নীলফামারীর ডিমলা উপজেলার বাবুরহাট সহ বিভিন্ন হাট-বাজারে পতাকা বিক্রি করেন আজিম হোসেন। আজিম পাশ্ববর্তী লালমনিরহাট জেলার লালমনিরহাট পৌরসভার ৪ নং ওয়ার্ডের জহুরুদ্দিন হেসেনের ছেলে। আজিম বলেন, আমি এক দরিদ্র পরিবারের সন্তান এ মাসের শুরুতে আমাদের নিজ উপজেলার একটি বে-সরকারী সংস্থা এনজিও থেকে ১০ হাজার টাকা ঋন নেই। সেখান হতে ৯ হাজার টাকার কাপড়ের তৈরী বিভিন্ন সাইজের জাতীয় পতাকা সহ অন্যান্য মালামাল কিনে ডিমলা উপজেলা আসি।

উপজেলার বিভিন্ন অফিস, স্কুল-কলেজ, অলিগলি ও গ্রামগঞ্জে সারা দিন নানান ধরনের জাতীয় পতাকা বিক্রি করেছি। মানুষ আনন্দের সঙ্গে জাতীয় পতাকা, হেড ব্যান্ড, আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা লেখাযুক্ত ফিতা, হাত কাঠি পতাকা, আমার কাছে কিনেছেন। আজিম জানায়, আমি জাতীয় পতাকা বিক্রির পাশাপাশি মানুষকে দেশপ্রেমের উদবুদ্ধ করছি। আজিমের কাছে পতাকা বিক্রি করার কথা জানতে চাইলে, সে জানায় বছরের অন্য সময় জাতীয় পতাকা কেনার তেমন একটা আগ্রহ থাকে না। কিন্তু ভাষার মাস, স্বাধীনতার মাস ও বিজয়ের মাসকে সামনে রেখে মানুষ জাতীয় পতাকা কিনে। তাই এবার ভাষার মাসের শুরু থেকে আজ পর্যন্ত আমি বেশ ভালই বেচাকেনা করেছি। পতাকা বিক্রি করে যে টাকা আয় হয়েছে সেই টাকা দিয়ে আমার দরিদ্র পরিবারের ভরণ-পোষণ করব। আজিম পতাকার মূল্য হিসাব জানায়, বড় আকারের একটি পতাকা ২ থেকে ৩’শত টাকা, মাঝারি আকারের পতাকা ১শ ৫০ থেকে ২শ টাকা, ছোট আকারের প্রকার ভেদে ২০ টাকা থেকে ১শ টাকা, এলাষ্টিক ব্যান্ড ও কাঠি পতাকা বিক্রি হয়েছে। এতে বেশ ভালই লাভজনক ব্যবসা হয়েছে বলে জানান আজিম।

পিএনএস/মোঃ শ্যামল ইসলাম রাসেল




 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech