চাঁদপুরে ১৮ রাউন্ড গুলির বিনিময়ে বাঁচলেন ইউএনও

  

পিএনএস ডেস্ক: চাঁদপুরের মতলব উত্তরে মেঘনা নদীতে ‘মা ইলিশ রক্ষা অভিযান’ চালানোর সময় উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) শারমিন আক্তারসহ সঙ্গীয় ফোর্সকে আক্রমণ করে বিক্ষুদ্ধ জেলেরা। এতে সহকারী মৎস্য কর্মকতাসহ আরও তিনজন আহত হয়েছেন। ভাগ্যক্রমে বেঁচে যান ইউএনও।

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় ষাটনল ছটাকি এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। বিক্ষুদ্ধ জেলেরা এ টিমকে লক্ষ্য করে ইট-পাটকেল নিক্ষেপ করে। আত্মরক্ষার্থে পুলিশ ১৮ রাউন্ড রাবার বুলেট ছুড়ে প্রাণে রক্ষা পায়।

ইউএনও শারমিন আক্তার ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ইলিশ জাতীয় সম্পদ। সরকারের নির্দেশনা অনুযায়ী মঙ্গলবার ষাটনল ছটাকি এলাকায় অভিযান চালাই। নদীর মাঝে গেলে জেলেরা আমাদের লক্ষ্য করে পাথর, ইট-পাটকেল ও দেশীয় অস্ত্র ছোড়ে। রীতিমতো তারা আমাদের আক্রমণ করে। পরে পুলিশ ১৮ রাউন্ড রাবার বুলেট ছোড়ে।

তিনি আরও বলেন, এরপরও অভিযান অব্যাহত রেখে পাঁচটি ইলিশ ধরার ট্রলার ও এক লাখ ২০ হাজার মিটার কারেন্ট জাল জব্দ করা হয়। জালগুলো পুড়িয়ে বিনষ্ট করা হয়েছে। অভিযানে মতলব উত্তর থানার চারজন ও মোহনপুর নৌপুলিশ ফাঁড়ির ছয়জন পুলিশ সদস্য ছিলেন।

মোহনপুর নৌপুলিশ ফাঁড়ির পরিদর্শক মো. আবু তাহের বলেন, অভিযান চালানোর সময় জেলেরা দেশীয় অস্ত্র নিয়ে আক্রমণ করলে আত্মরক্ষার জন্য নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের নির্দেশে ১৮ রাউন্ড রাবার বুলেট ছোড়া হয়।

সিনিয়র উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা মো. সাখাওয়াত হোসেন বলেন, অভিযানে গেলে জেলেরা আমাদের ওপর আক্রমণ করে। এতে আমাদের সহকারী মৎস্য কর্মকর্তা মনজুরুল হকের মুখে পাথরের ঢিলা পড়ে গুরুতর আহত হয়। তাকে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

পিএনএস/হাফিজুল ইসলাম

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech