পাইকগাছায় তল্লাশির নামে ব্যবসায়ীকে বেধে হয়রানী

  

পিএনএস, পাইকগাছা (খুলনা) প্রতিনিধি : খুলনার পাইকগাছায় ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে নিষ্ফল অভিযানে ব্যবসায়ী ও আইন বিষয়ে অধ্যায়ন রত এক ছাত্রকে রশি দিয়ে বেধে হয়রানীর অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় স্থানীয় জনপ্রতিনিধিসহ ব্যবসায়ীরা ক্ষুব্দ প্রতিক্রিয়া দেখিয়েছেন। স্থানীয়দের অভিযোগের তীর কথিত সোর্স হালিম শিকারীর দিকে।

উপজেলার গড়ইখালী বাজারের মা টেলিকম'র মালিক ও আইন পেশার ছাত্র আহসানুল্লাহ সুমন অভিযোগ করেন গত শুক্রবার রাত ১০ টার দিকে সাদা পোশাকধারী দু’ব্যক্তি কথা আছে বলে আমাকে দোকান ডেকে বাহিরে এনে সঙ্গে সঙ্গে চেয়ারের সাথে রশি দিয়ে বেধে তারা কোষ্ট গার্ডের সদস্য বলে পরিচয় দেন। এর কিছু পরে পোশাকধারী একজন এগিয়ে এসে বলে দোকানে গাঁজা আছে তল্লাশি করা হবে। পার্শ্ববর্তী উজ্জ্বল ফার্মেসীর মালিক সুমনের ভাই রহিম জানান, বিষয়টি জানাজানির এক পর্যায়ে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান, ব্যবসায়ীসহ লোকজন জড়ো হয়। দু'ভাইয়ের অভিযোগ প্রায় ঘন্টাব্যপি তল্লাশি চালিয়ে কিছুই না পেয়ে শুধুই সম্মান নষ্ট করে তারা স্থান ত্যাগ করেন। তবে তারা চলে যায় সময় ইউপি চেয়ারম্যান- মৃদ্যু আকারে প্রতিবাদ জানালে স্থানীয়রা বিক্ষুব্দ হয়ে উঠেন বলে জানাগেছে।

ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে আওয়ামী লীগ নেতা ও ইউপি চেয়ারম্যান রুহুল আমীন বিশ্বাস বলেন, তল্লাশির নামে ভালো মানুষকে বেধে হয়রানী করা দুঃখ জনক ঘটনা। এ ব্যাপারে ব্যবসায়ী, চেয়ারম্যান সহ স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতা আক্তার সানা, রব্বানী গাজী, বিএম শফি অনেকেরই অভিযোগ কথিত সোর্স হালিমকে এ ঘটনার পিছনে দায়ী করেছেন। ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে তল্লাশিতে আসলে কোষ্টগার্ডের সদস্যরা ছিল কিনা তা জানার জন্য মোংলা জোনের নলিয়ানের সিসি অফিসারের সাথে মোবাইলে যোগাযোগের চেষ্টা করেও কথা বলা সম্ভব হয়নি।

পিএনএস/মোঃ শ্যামল ইসলাম রাসেল


 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech