ডালিয়া প্রধান সেচ খালের সুরঙ্গ পথ বন্ধ করায় রক্ষা পেল হাজার হাজার বিঘা জমি

  

পিএনএস, ডিমলা (নীলফামারী) প্রতিনিধি: নীলফামারী ডিমলা উপজেলার ডালিয়া পানি উন্নয়ন বোর্ড এর আওতাধীন ডালিয়া হতে ধুন্দিবাড়ী ১৭.৯২ কিঃমিঃ পর্যন্ত প্রধান সেচ খালটির ডান পাশ্বে কাঁচা রাস্তা (ডান ডাইক)। এরই মধ্যে নাউতারা ইউনিয়নের দক্ষিণ কাকড়া মৌজার বাঘের পুলের পশ্চিম হোটোল টোকলা সাইফোন সংলগ্ন ডান রাস্তাটির (ডান ডাইক)।

সুরঙ্গ হয়ে পানি প্রবাহিত হলে ওই ডাইকের পার্শ্ববর্তী বসবাস কারী শিক্ষক মোঃ ফয়জুল ইসলাম চলতি বোরা মৌসুমে নিজ জমিতে গত ১৬ ফেব্রুয়ারী পানি দেখতে গেলে তার দৃষ্টি গোচর হয় সুরঙ্গটি। এতে তিনি এলাকাবাসির সহায়তায় সুরঙ্গটি বন্ধের প্রথমিক চেষ্টা চালায় এবং পাউবোর সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাগণকে অবগত করেন।

সরেজমিনে গিয়ে জানা যায়, যদি ওই প্রবাহিত সুরঙ্গপথটি নিয়ন্ত্রনে আনা সম্ভব না হতো তাহলে ডান ডাইকটি ভেঙ্গে অতত অঞ্চলের মানুষ ,গবাদী পশু, আবাদী ফসল, পুকুরের পোষা মাছ তথা অপুরনীয় ক্ষতি সাধন হতো। এ বিষয়ে ডালিয় পওর বিভাগ শাখা-১ এর উপসহকারী কর্মকর্তা মজিবুর রহমান বলেন ঘটনাটি শুনা মাত্র সাতজান আর-১ টি ক্যাম্পের আনছার বৃন্দ ও স্থানীয় ঠিকাদার মোঃ ওবাইদুর রহমান সহ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করি এবং সুরঙ্গ পথটি চিহ্নিত করে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। উক্ত কাঁচা রাস্তাটি (ডান টাইক) ঝুকিপূর্ণ কিনা এবং তা মেরামতের ব্যাপারে অফিস কেন পদক্ষেপ নিচ্ছেকিনা এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে তিনি বলেন পদক্ষেপ নিচ্ছেনা এটা নয় বৃহত্তর রংপুর দিনাজপুর বগুড়া জেলার সেচ কার্যক্রম ডালিয়া পওর বিভাগ অত্যান্ত সুফলের সঙ্গে পরিচালনা করে আসতেছে।

ডাইক মেরামতের বাজেট বরাদ্দ প্রতিবছর না হওয়ায় পূর্নাঙ্গ মেরামত করা সম্ভব হয় না। সেই সঙ্গে কথা হয় ডালিয়া পওর বিভাগ শাখা-২ এর কর্মকর্তা মোস্তাফিজুর রহমান এর সঙ্গে তিনি বলেন কোথাও কোন সমস্যা দেখা দিলে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা-কর্মচারীগণ সমস্যা সমাধানে তৎপর রয়েছে। বরাদ্দ আসামাত্র মেরামের কাজ করা হবে।

পিএনএস/মোঃ শ্যামল ইসলাম রাসেল

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech