তামিমের লাইভ আড্ডা শেষ!

  

পিএনএস ডেস্ক: মাঠে খেলা নেই প্রায় তিন মাস হতে যাচ্ছে, অনাকাঙ্ক্ষিত ছুটিতে ক্রিকেটাররা, সমর্থকরাও। করোনাভাইরাসের কারণে সৃষ্ট এই সময়টাকে আনন্দময় করে তুলতে টাইগারদের ওয়ানডে অধিনায়ক তামিম ইকবালের দারুণ উদ্যোগ হচ্ছে লাইভ আড্ডা।

প্রথমে ইনস্টাগ্রামে শুরু করলেও ভক্তদের অনুরোধে পরে সেটি স্থানান্তর করা হয় ফেসবুকে। মুশফিকুর রহিমকে দিয়ে শুরুর পর মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, মাশরাফি বিন মোর্ত্তজা, রুবেল হোসেন, তাসকিন আহমেদ, নাসির হোসেন, মুমিনুল হক সৌরভ, সৌম্য সরকার, লিটন দাস, তাইজুল ইসলাম। সাবেকদের মধ্যে নাঈমুর রহমান দুর্জয়, খালেদ মাহমুদ সুজন, হাবিবুল বাশার সুমন ছিলেন অতিথি। মিনহাজুল আবেদিন নান্নু, আকরাম খান থেকে খালেদ মাসুদ পাইলটও মেতে উঠেছিলেন লাইভ আড্ডায়।

এছাড়াও বিদেশিদের মধ্যে দক্ষিণ আফ্রিকার তারকা ফাফ ডু প্লেসি, ভারতীয় ওপেনার রোহিত শর্মা, অধিনায়ক বিরাট কোহলি থেকে পাকিস্তান কিংবদন্তি ওয়াসিম আকরাম যোগ দেন তামিমের সঙ্গে আড্ডায়।

সব শেষ গত বৃহস্পতিবার যোগ দিয়েছিলেন কেন উইলিয়ামসন। এদিন তামিম জানিয়ে দেন শনিবারের শো দিয়েই ইতি টানবে এই লাইভ আড্ডার।

শেষ পর্বে তামিমের অতিথি ছিলেন মাশরাফি বিন মর্তুজা, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ এবং মুশফিকুর রহীম। দীর্ঘ দেড় ঘণ্টার আড্ডায় উঠে আসে তিনজনের মজার সব কথা। পঞ্চপান্ডবের চারজনের আড্ডার মাধ্যমেই শেষ হয় তামিমের এই লাইভ আড্ডার আয়োজন।

তামিম তার এই শেষ লাইভে দুঃখ নিয়ে বলেন, ‘বলতে খারাপ লাগছে, এটা লাস্ট শো আমার। এরপর আর করবো না। আমি জানি না এভাবে আর কখনও আসতে পারব কী না। শো’টা শুরু করার কারণটা বলি, দেখেন অনেকে অনেক টাকা পয়সা দিয়েও মানুষকে খুশি করতে পারে না। সেখানে আমার উদ্দেশ্য ছিল এই সময়ে যদি এই শো দিয়ে দুইটা মানুষকে খুশি করতে পারি। এটাই ছিল আমার চিন্তা। আলহামদুলিল্লাহ সাড়াও খুব ভালো ছিল।’

পিএনএস/এএ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন