কোহলি আমার লাইফের ড্রিম উইকেট: রাহি

  

পিএনএস ডেস্ক : ইন্দোর টেস্টে বাজেভাবে হারলেও যদি কোনো প্রাপ্তি খোঁজা হয়, তবে নিশ্চিতভাবেই সেটি আবু জায়েদ রাহির বোলিং। ম্যাচটা ইনিংস ও ১৩০ রানে হেরেছে বাংলাদেশ। অর্থাৎ টাইগার বোলাররা মাত্র এক ইনিংস বল করার সুযোগ পেয়েছেন। যে ৬ উইকেট পড়েছিল ভারতের ইনিংসে, সেখানে ৪টিই নিয়েছেন রাহি।

সিলেটী পেসার রাহির শিকারের তালিকায় ছিলেন রোহিত শর্মা, চেতেশ্বর পুজারা, বিরাট কোহলি ও আজিঙ্কা রাহানের উইকেট। মাত্র ষষ্ঠ টেস্ট খেলতে নামা রাহি বলছেন, রোহিত-কোহলিদের আউট করাটা তার জন্য ছিল দারুণ আনন্দের। এর মধ্যে কোহলির উইকেটকে স্বপ্নের উইকেট হিসেবে উল্লেখ করেছেন রাহি।

ইন্দোর টেস্ট শেষ হয়েছে মাত্র তিন দিনেই। শুক্রবার ইডেনে শুরু হবে দ্বিতীয় টেস্ট। কলকাতায় পাড়ি দেওয়ার আগে এদিন ইন্দোরেই অনুশীলন করেছে টাইগাররা। অনুশীলনের ফাঁকে সংবাদমাধ্যমে কথা বলেন পেসার আবু জায়েদ রাহি।

এ সময় রোহিত-কোহলির উইকেট নিয়ে বলতে গিয়ে রাহি বলেন, ‘ওরা বিশ্বের এক-দুই নম্বর ব্যাটসম্যান বলতে গেলে। যেহেতু কোহলি এক নম্বর ব্যাটসম্যান। কোহলিকে আউট করা মানে ড্রিম উইকেট। অবশ্যই কোহলি আমার লাইফের ড্রিম উইকেট।’

টেস্টে প্রথম দিন বাংলাদেশ প্রথম ইনিংসে ১৫০ রানে অলআউট হওয়ার পর ব্যাটিংয়ে নামে ভারত। ওপেনার রোহিত শর্মাকে মাত্র ৬ রানেই ফিরিয়ে দিয়েছিলেন রোহিত। পরদিন সকালে দ্রুত তুলে নেন পূজারা (৫৪) ও কোহলিকে। কোহলি ২ বলে শূন্য রানে ফেরেন। এরপর রাহানেকে (৮৬) সেঞ্চুরি বঞ্চিত করেন রাহি।

তবে ৪ উইকেট নয়, রাহির উইকেট সংখ্যা হতে পারত আরো বেশি। প্রথম দিনই যেমন মায়াঙ্ক আগারওয়াল তার বলে ক্যাচ দিয়েছিলেন স্লিপে। সেটি ফেলে দেন ইমরুল কায়েস। শেষ পর্যন্ত আগারওয়াল ডাবল সেঞ্চুরি (২৪৩) করে পুড়িয়েছেন বাংলাদেশকে। সতীর্থরা ক্যাচ মিস না করলে তাই ৫ উইকেট পেয়ে যেতে পারতে রাহি।

গেল বছর ওয়েস্ট ইন্ডিজের মাটিতে স্বাগতিকদের বিপক্ষে অভিষেক টেস্টে ৩ উইকেট নেন রাহি। সে ম্যাচেও দুটি ক্যাচ ছেড়েছিলেন ফিল্ডাররা। ফলে ৫ উইকেট পাওয়া হয়নি। রাহিকে কি একটু হলেও হতাশায় ডুবায় না এই বিষয়গুলো?

ডানহাতি এই পেসার বলেন, ‘হতাশার না। সত্যি কথা বলতে এটা ক্রিকেটের অংশ। আমি মেনে নেই। মিস হয়ে গেলে তো কিছু করার নাই। আমি যদি এই মিস নিয়ে বসে থাকি তবে...। আমি চেষ্টা করি আরেকটা ক্যাচ গেলে টিমমেটরা ভালো ধরবে। সাইফ কিন্তু পুজারার ক্যাচটা ভালো ধরেছে।’

ইন্দোর টেস্টে মাত্র দুই পেসার নিয়ে খেলেছে বাংলাদেশ। একজন পেসার কম নিয়ে খেলার জন্য ভুগতেও হয়েছে টাইগারদের। কলকাতা টেস্টে নিশ্চয়ই একাদশে তৃতীয় পেসার চাইবেন রাহি-ইবাদতরা?

প্রশ্নটা শুনে হেসে রাহি বললেন, ‘টিম ম্যানেজমেন্ট যেটা ভোলো মনে করবে...।’

পিএনএস/জে এ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন