মুশফিকের 'আলহামদুলিল্লাহ' ভাইরাল

  

পিএনএস ডেস্ক: ‘মিস্টার ডিপেন্ডেবল’ বাংলাদেশের ক্রিকেটে একজনই, তিনি মুশফিকুর রহিম। দলের বিপদের জন্য বাইশগজে গিয়ে মুশফিক হয়ে যান নির্ভরতার প্রতীক। দেশের ক্রিকেটে ভীষণ দুঃসময়ে এসেছে বলে জয়টি দারুণ স্মরণীয়ও।প্রতিপক্ষের মাঠে ঐতিহাসিক এ জয়ের নায়কও তিনি।

এই জয় নিয়ে উৎসাহ যে কতটা তা বুঝা যায় মুশফিকুর রহিমের ফেসবুক পেজ থেকে দেয়া পোস্টে ভক্তদের রিসপন্স দেখে। ভারতকে হারানোর পরপরই মুশফিকুর রহিমের ভেরিফাইড ফেসবুক পেজ থেকে একটি ছোট্ট পোস্ট দেয়া হয়। যেখানে মুশির একটি ছবির সঙ্গে শুধু লেখা হয়েছে 'আলহামদুলিল্লাহ'।

বিস্ময়করভাবে পোস্টটি মুহূর্তেই ভাইরাল হয়ে গেছে। মাত্র ৫ মিনিটে এতে লাইক পড়ে ৫০ হাজারের বেশি। শেয়ার হয় এক হাজার বারের বেশি।

গত কয়েক সপ্তাহ ধরে দেশের ক্রিকেটাঙ্গণে চলতে থাকা গুমট পরিবেশে এ যেনো স্বস্তির হিমেল হাওয়া। পুরো দেশ মেতেছে এ জয়ে। সামাজিক যোগযোগমাধ্যম সমর্থকদের উল্লাস আর অভিনন্দনে ভরা।

দুর্দান্ত এই ইনিংসে দলকে জিতিয়ে মাঠ ছাড়ার পর মুশফিক বলেছেন, হাজার হাজার দর্শকের সামনে আমরা খেলছিলাম, এটা অবশ্যই বিশেষ অনুভূতির। জয়ের পর তাই মুশফিকের মনে পড়েছে প্রিয় সন্তানের কথা।

রোববার (৩ নভেম্বর) দিল্লির অরুণ জেটলি স্টেডিয়ামে তিন ম্যাচ টি-টোয়েন্টি সিরিজের প্রথম ম্যাচে ভারতের দেওয়া ১৪৯ রানের জয়ের লক্ষ্য ৩ বল হাতে রেখেই পেরিয়ে যায় টাইগাররা। ২০১৬ সালের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে শেষ মুহূর্তের চাপে ভারতের কাছে হারের যন্ত্রণা হয়তো কিছুটা হলেও দূর করতে পেরেছেন মুশফিকুর রহিম।

তিনি বলেন, এই জয়, এই ইনিংস আমি আমার ছেলে মায়ানকে উৎসর্গ করতে চাই। ওকে অনেক মিস করি আমি। ও খুব দ্রুত বেড়ে উঠছে, টিভিতে আমার ছবি দেখে চিনতে পারে, এটা কে।এটা আসলেই বেশ আনন্দের। আমি এই ফিফটি ও এই জয় ওকে উৎসর্গ করতে চাই।

এই ম্যাচ নিয়েও কথা বলেন মুশফিক। এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন ‘প্রথমেই সৃষ্টিকর্তার কাছে শোকরিয়া। আপনি যেটা বললেন আসলেই বাংলাদেশ ক্রিকেটের জন্য অন্যতম একটি মুহুর্ত, কারণ টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে আমরা এমনিতেই পিছিয়ে। আর যেটা বললেন, আমরা আমাদের সেরা দুজন খেলোয়াড়কে ছাড়া খেলেছি; তবে দলের তরুণরা বিশেষ করে বোলাররা ভারতের মত দলের বিপক্ষে যেভাবে বল করেছে সত্যি অসাধারণ। মূলত তারাই আমাদের খেলায় রেখেছে।

৩৯ রানে জীবন পাওয়া মুশফিক ১৯তম ওভারের শেষ চার বলে টানা ৪ মারেন মুশফিক। তাতেই ম্যাচ হাতের মুঠোয় চলে আসে সফরকারীদের। ৪৩ বলে ৬০ রানের অপরাজিত ইনিংস খেলে হন ম্যাচসেরাও।

পিএনএস/এএ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech