ক্রিকেটার রুবেল এবং নায়িকা হ্যাপির অডিও ফাঁসঃঅশ্লীল গালাগালি শোনার অযোগ্য

  

পিএনএসঃ ক্রিকেটার রুবেল এবং নায়িকা হ্যাপির অডিও ফাঁস হয়েছে।প্রকাশিত অডিওতে তাদের অশ্লীল গালাগালি শোনার অযোগ্য।তাদের নোংরা গালাগালি শুনে তাদেরকে সেলিব্রেটি মনে হয়নি।পিএনএস-এর পাঠকদের জন্য অশ্লীল গালাগালি বাদ রেখে অডিওটির কথোপকথন প্রকাশ করা হলোঃ

রুবেল: এটা তুমিও জানো আমিও জানি

হ্যাপী: আমি এগুলো শুনতে চাই না...

রুবেল: এর মতো চরম সত্য কথা দুনিয়াতে আর নেই।

হ্যাপী: এটা কিসের সত্য কথা আপনি আমাকে আজকে যে মনোভাব দ্যাখাইছেন না আপনি একজন সেলিব্রেটি আমি আপনার মতো সেলিব্রেটিকে...(বিশ্রি গালি), সে যত বড় সেলিব্রেটি হোক না কেন

রুবেল: মেজাজটা গরম করছ কেন কী বলছ তোমার মাথা ঠিক আছে তুমি এগুলো কী বলছ তোর সঙ্গে সেলিব্রেটি...(খিস্তি)

হ্যাপী: না, আমার মনে হচ্ছে আমি একজন সেলিব্রেটিকে ফোন দিছি, যে মহাব্যস্ত।

রুবেল: সেলিব্রেটিকে ফোন দিছি মানে আমার শরীরের অবস্থা খারাপ।

হ্যাপী: না, আপনি তো আজ প্রথম মাঠে নামছেন, প্রথম দিন খেলে গায়ে ব্যথা হয়ে গেছে।

রুবেল: তোমার কোনো আইডিয়া নেই, আমি তোমাকে বলি টেস্ট ক্রিকেটে কী রকম কষ্ট...(অশ্লীল)। আমার সারা শরীর যা ব্যথা, পরের টেস্ট নাও খেলতে পারি। তুমি তা তো শুনবা না...(অশ্লীল)। ওইখান থেকে আসলাম। আসার পর আমার এক খালা এলো খুলনায় এবং সাথে অনেকগুলা পিচ্চি-পাচ্চা সঙ্গে নিয়ে। এরপর অনেক কয়েক জন প্লেয়ারের সাথে অনেক ছবি-টবি তুলে দিলাম। অনেকণ ছিল, প্রায় ৪৫ মিনিটের মতো। তারপর ছবি-টবি তুলে চলে গেছে। তারপর ডিনার করতে সাকিব ভাইদের বাসায় যাই। এরপর আসলাম। তুমি যে আমার এই নাম্বারে ফোন দিছ আমি তো ভয়ে কাঁপতেছি। আর আমি জানতামই যে তুমি এই নাম্বারে ফোন দিতে পারো। আমি তোমারে চিনি না! তুমি ভাব কী বাবু। আর তুমি কি মনে করো আমি এ রকম কথা বলব কোনো মেয়ের সাথে

হ্যাপী: আর কোনো মিথ্যা কথা শুনব না। আমি আর কোনো বোকামি করব না। আমি আর তোমাকে বিশ্বাস করি না। একটুও না।

রুবেল: সত্যি আমি যা বলছি তাতে একটাও মিথ্যা নাই।

এ সময় দুজনে একই সাথে কথা বলতে বলতে শুরু হয় পরস্পরের খিস্তিখেউড়, বিতন্ডা।

কিছুক্ষণ পর...

রুবেল : সত্য কথা আমি আজ অনেক ব্যস্ত ছিলাম, ঠিক আছে আমি সাড়ে ৭টা না ৮টা পর্যন্ত ডাক্তারের কাছে ছিলাম। বিশ্বাস করো।

হ্যাপী: হ্যাঁ, আমি সব বুঝি। আমি আসলে খুবই বোকা। নিজের ভালো বুঝি না।

রুবেল: তোমার বোঝা উচিত হ্যাপী। হ্যাপী শোনো তোমার তো এটা বুঝা উচিত যে আমার আসলে বিজি সময় থাকতেই পারে, তাই না আমার প্রফেশনটা তোমার বুঝতে হবে। আমার যদি কোনো মিটিং থাকত টিমের কোনো ডিনার থাকত তাহলে হ্যাপী তাহলে কী করতা বলো এই প্রফেশনে বিজি থাকাটা খুবই স্বাভাবিক হ্যাপী। আমাদের বিজি সময় থাকতে পারে হ্যাপী। তার পরও আমি যখনই ফ্রি হই, তখনই তোমাকে ফোন করি, তোমাকে নক করি। তুমি ঝগড়া...(অশ্লীল) তাই আমি তোমার সাথে যোগাযোগটা নিয়মিত রাখার চেষ্টা করি। তারপরও যদি আমার সাথে এমন করো হ্যাপী তাহলে কেমন হয় বলো।

হ্যাপী: ওকে থাক, তোমাকে এত কষ্ট আর করতে হবে না।

রুবেল: তুমি শুধু শুধু আমাকে ভুল বুঝতেছ হ্যাপী। আমি আসলে আজ অনেক ব্যস্ত ছিলাম। আর তুমি খুব ভালো করেই জানো যে আমরা যখন তখন বের হতে পারি না। তুমি আমাকে উল্টাপাল্টা কোন ব্লেইম (দোষারোপ) দিবা না।

হ্যাপী: আমি আপনাকে ব্লেইম দিতে চাচ্ছি না। আমি ফেসবুকে বক দিসি, আমার ফোনে ব্লকটা হচ্ছে না। ...আপনি আমার সাথে কিছু করেন নাই। আমি আপনার আর কোনো কথা বিশ্বাস করতে পারব না। আমি তখন শিওর ছিলাম যে আপনি কারও সাথে কথা বলেছেন।

রুবেল: আচ্ছা তুমি আমার কথাটা শুনবা তো। আমার কথা বিশ্বাস করবা তো।

হ্যাপী: আপনি দুইটা উইকেট পাইছেন, তো আপনি অনেক সুখী, তো আপনার সুখী মুহূর্ত শেয়ার করার মতো পারসন তো আমি নই। আপনার সুখী মুহূর্ত শেয়ার করবেন তো অন্য কারও সাথে।

রুবেল: আরে দূর... (অশ্লীল) আমি কোন মেয়ের সাথে কথা বলছি নাকি। ...আরে দূর তুই আমার ওই নাম্বারটা তোর ধারে রাখিস।...(অশ্লীল)

হ্যাপী: আমার কোনো দরকার নাই। এই সব বিষয়ে আমি আর নাই।

রুবেল: সত্যি কথা বলতে... (অশ্লীল) এই জন্যই তোমার ওপর আমার মেজাজটা গরম হয়।...থাকে না অনেক। বন্ধু বান্ধব ফোন দিতে পারে না আমি ছেলেবন্ধুদের সাথে কথা বলতে পারব না দেখা করা তো বন্ধই করে দিছি।

হ্যাপী: আপনি তো ছেলে বন্ধুদের সাথে কথা বলছিলেন না। আপনি যতই বলেন না কেন, আমি তো এটা বিলিভ করবই না।

রুবেল: আচ্ছা তোমার কি মাথা গেছে হ্যাপী। তুমি আমারে ফোন দিবা এটা আমি জানি। তো এই ভয়টা তো আমার আছে। ফোন দিয়ে ওয়েটিং পেলে যে চিল্লাচিল্লি করবা, সে ভয়টা তো আমার আছে।

হ্যাপী: আপনার কিসের ভয় আপনার তো কোনো ভালোবাসা নাই। ভালোবাসা থাকলে ভয় থাকত আপনার।

রুবেল: বাবু তোরে আমি ভালোবাসি না এই কথাটা উচ্চারণ করে না বাবু। চুপ করো...

হ্যাপী: জানি! আপনার সাথে আমার রিলেশন হওয়ার পর এই খুলনা সিরিজটিতে ভালো খেলছেন, তুলনামূলকভাবে। মানে পেসারদের জন্য অনেক কঠিন উইকেট তবুও তুমি দুইটি উইকেট পাইছ, এক ওভারে। এটা তোমার জন্য বড় একটা সিগমেন্ট। তো...

রুবেল: বাবু শোনো, তোমার সাথে রিলেশন হওয়ার পর আমি মাত্র একটা ম্যাচ খেলেছি। আর এই একটা ম্যাচ...

(আরও কিছু কথোপকথনের পর)

রুবেল: বাবুতোরে বাবু আমি অনেক বেশি ভালোবাসি বাবু। এতটা বেশি যে আমি বোঝাতে পারব না বাবু। আর সিম্পল বিষয় নিয়ে তুমি আমার মনটা খারাপ করে দিচ্ছ।

হ্যাপী: কোনো সিম্পল বিষয় না। কিসের সিম্পল

রুবেল: কালকে আমার ব্যাটিং আছে, কালকে আমার বোলিং আছে। কালকে অনেক টাফ একটা দিন যাবে...

হ্যাপী: আমি তোমার সাথে কথা বলব না। আমার আসলে বোঝা উচিত যে... আমি এত গাধা কেন মাঝেমাঝে মনে হয় নিজের মাথাটা দেয়ালের সাথে ফাটাই।

রুবেল: আস্তে কথা বল। আস্তে কথা বলো না...

হ্যাপী: আমার বাসায় আমি চিল্লায়ে কথা বলব, তোর কী

রুবেল: (কিছুণ চুপ থেকে)...আমার বন্ধুবান্ধব কয় তুমি টেনশন না করে খেলায় মন দাও...

হ্যাপী: আচ্ছা তোমার কথা শেষ তুমি তো বলছিলা যে, তোমার কিছু কথা শোনার জন্য। শুনছি। শেষ। আমার এয়ারটেলের এই...(খিস্তি) এই নেটওয়ার্কের খালি কয়েক দিন পরপর প্রবলেম হয়।

রুবেল: আচ্ছা হ্যাপী তোমাকে একটা কথা বলব

হ্যাপী: হ্যাঁ বলো।

রুবেল: কথা হচ্ছে কী বাবু, তোমার সাথে আমার রিলেশন হওয়ার পর থেকে তুমি আমাকে একটু শান্তিমতো টেনশন মুক্ত থাকতে দাওনি। এক দিন পর পর তোমার সাথে ঝগড়া লাইগাই আছে আমার। আমি কিছু করিনি, তুমি এটা বুঝতে পার যে ও এটা করেনি, তবুও। এক-দুইদিন পর বোঝ তুমি।

হ্যাপী: তাই, না এইবার তুমি দেখ আমি দু-একদিন পর বুঝি কিনা আমি কালকে আউটডোর যাচ্ছি। ১৮ তারিখ ঢাকায় ফিরব। কাজে বিজি থাকব। সো তোমাকে ভুলে থাকা আমার জন্য একটু ইজি হবে। কক্সবাজার এবার টপ একটা মিশন আমার। এই মুভিটা বড় একটা চ্যালেঞ্জ।

রুবেল: ধুর...(খিস্তি) খেলার গুষ্টিটা মারে আমার। যে দিন ঝগড়া হয় সেদিন... ভালো খেলি না।

হ্যাপী: কে বলছে তুমি কালকেও অনেক ভালো খেলবা। তুমি যে মেয়ে ২টার সাথে শেয়ার করছ যে কালকে তুমি দুইটা উইকেট পাইছ...

রুবেল: আরে ধুর চুপ। ফোন রাখ...

হ্যাপী: ওকে ঠিক আছে। বাই


 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech