নতুন প্রেমের ফাঁদে ক্রিকেটার সাকিব

  

পিএনএস (নুরুল ইসলাম) : ঘরে-বাইরে এবং খেলার মাঠে ভালই সময় কাটাচ্ছেন বিশ্ব সেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান। নিষেধাজ্ঞার রাহুগ্রাস থেকে মুক্ত হয়ে এখন খেলার মাঠে পূর্ণিমার চাঁদের মতো ঝলমল করছেন। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে খুলনা টেস্টে তিনি স্বমহিমায় প্রতিষ্ঠিত হয়েছেন। কিন্তু সব কিছু ছাপিয়ে সকলের মুখে মুখে একটি মুখরোচক খবর ঘুরপাক খাচ্ছে। সকলেই বলে বেড়াচ্ছেন বিশ্ব সেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান প্রেমের ফাঁদে পড়েছেন। প্রেমের ফাঁদে এতোটাই দিওয়ানা হয়েছেন যে, খেলার মাঠের সাফল্যকেও প্রেমাস্পদের জন্যে ডেডিকেট করতে ভুলে যাননি। খুলনার শেখ আবু নাসের স্টেডিয়ামে মঙ্গলবার ক্যারিয়ারের তৃতীয় শতক তুলে নিয়ে ব্যাট ও গ্লাভস মাটিতে রেখে দুই হাতের আঙ্গুল দিয়ে ‘হৃদয়’ তৈরী করেন। গ্যালারীর দিকে ছুড়ে দেন ফ্লাইং কিস। এই আলোচিত ফ্লাইং কিস নিয়ে তাকে সাংবাদিকরা প্রশ্ন করলে সাকিব আল হাসান একটু লজ্জাবনত দৃষ্টিতে প্রেমিকসুলভ ভঙ্গিতে চটপট করে শুনিয়েছেন এক নতুন কথা। তিনি বলেছেন, “একটু ভিন্নতা ছিল আর কি? যার উদ্দ্যেশ্যে করেছি শুধু সে বুঝলেই চলবে। অন্য কারো না বুঝলেই হবে।”



বিশ্ব সেরা অলরাউন্ডার, খ্যাতিমান সেলিব্রেটি সাকিব আল হাসানের এই উক্তিতে ক্রীড়া সাংবাদিকদের অনুসন্ধানী দৃষ্টি ও মন গ্যালারী, মাঠ ও মাঠের বাইরে এই সৌভাগ্যবতীকে খুজে ফিরছে। অনেকেই বলছেন, সাকিব তার প্রিয়তমা স্ত্রীর উদ্দ্যেশ্যেই ফ্লাইং কিসটি ছুড়ে দিয়ে এই আলোচিত সেঞ্চুরীটি ডেডিকেট করেছেন মাত্র। কারণ, সংসার জীবনের ইনিংস খেলতে গিয়ে মাঠের খেলায় তৃতীয় সেঞ্চুরীর জন্যে তাঁকে ১৯টি ইনিংস অপেক্ষা করতে হয়েছে। এর আগে ২০১১ সালের ডিসেম্বরে ঢাকায় পাকিস্তানের বিপক্ষে ১৪৪ রান করেছিলেন সাকিব আল হাসান।



যাহোক, স্ত্রীর প্রেমের ফাঁদেই হোক কিংবা অন্য কোন সৌভাগ্যবতীর প্রেমের ফাঁদেই হোক প্রেম জালে সাকিব ভাল ভাবেই বন্দী হয়েছেন সেটা বুঝতে কারো বাকী নেই। সাকিব আল হাসানের একজন সামান্য ভক্ত হিসেবে আমার অবশ্যই প্রত্যাশা থাকবে তিনি অবশ্যই তাঁর স্ত্রী ব্যতিরেকে অন্য কোন মায়াবী হাতছানিতে সাড়া দিবেন না। তবে ভক্ত অনুরাগীদের মূল্যায়ন করে কিছু করলে সেটা ভিন্ন কথা যদিও তারও একটি সীমা রেখা অবশ্যই থাকা বাঞ্চনীয়। আমি বিশ্বাস করি, সাকিব আল হাসান মাঠ থেকে যে ফ্লাইং কিস দিয়েছেন তা অবশ্যই তাঁর স্ত্রীর প্রতি ডেডিকেট করেছেন। অবশ্যই তিনি অন্য কারো প্রতি এমনটি করেননি। তবে এই বিষয়ে সাকিব আল হাসান খুব স্বল্প সময়ে সব কিছু পরিস্কার করে, খোলামেলা ভাবে সব কিছু বললে যাবতীয় বিতর্ক ও সন্দেহের অবসান হবে। আশা করি, সাকিব তাড়াতাড়িই এই বিতর্কের অবসান ঘটাবেন।
একটু প্রসারিত দৃষ্টিতে চোখ মেললেই আপনি জানবেন মাঠের বাইরেও অলরাউন্ডার সাকিব ফেসবুকের পাতায়ও কম জনপ্রিয় নন। ইতিমধ্যেই তাঁর ফ্যানপেজে ৪০ লাখের উপরে লাইক পড়েছে। এই ভক্ত অনুরাগীদের মধ্যে সুন্দরী ললনাদের সংখ্যাও নগণ্য নয়। তাঁকে নানা রকম আবেগঘন প্রশ্নের উক্তরও কম শেয়ার করতে হয় না। তাছাড়া স্ত্রী শিশিরের সাথে পার্টনারশীপে সংসার জীবনের ইনিংস খেলতে শুরু করলে অনেক তরুণীর কোমল হৃদয় ভেঙ্গে খানখান হয়েছিল বলে পত্র-পত্রিকার খবরে পড়েছি। তাঁদের মধ্যে কারো কপালে যদি এই ফ্লাইং কিস ডেডিকেট হয়ে থাকে তাহলে তা বড়ই বেদনার-লজ্জার। কিছুটা ঘৃণারও বটে।

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech