নাসিমের ঘোষণা শেষ, চেয়ার ভাঙচুর শুরু!

  



পিএনএস ডেস্ক: বগুড়ায় আওয়ামী লীগের সম্মেলনের দ্বিতীয় অধিবেশনে কমিটি ঘোষণা শেষ হওয়ার সঙ্গে সঙ্গেই পদবঞ্চিত নেতার সমর্থকরা চেয়ার ভাঙচুর শুরু করেন।

শনিবার বিকালে শহরে আলতাফুন্নেছা খেলার মাঠে জেলা আওয়ামী লীগের সম্মেলনে এ ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, সম্মেলনে প্রথম অধিবেশনে বক্তব্য পর্ব শেষ হওয়ার পর বিকাল ৩টার দিকে দ্বিতীয় অধিবেশনে প্রধান অতিথি আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য মোহাম্মদ নাসিম সংক্ষিপ্ত কমিটি ঘোষণা দেন। মঞ্চে বিপুলসংখ্যক জাতীয় ও স্থানীয় নেতা, অতিথি এবং অন্যরা উপস্থিত ছিলেন।

সভাপতি হিসেবে সদ্য সাবেক সাধারণ সম্পাদক মজিবর রহমান মজনুর নাম ঘোষণা করা হয়। এ সময় উপস্থিত নেতাকর্মীরা করতালি দিয়ে অভিনন্দন জানান। ১১ জন প্রার্থীর মধ্যে সাধারণ সম্পাদক হিসেবে সদ্য সাবেক যুগ্ম-সম্পাদক রাগেবুল আহসান রিপুর নাম ঘোষণার সঙ্গে সঙ্গে অপর একজন প্রার্থীর সমর্থকরা হট্টগোল শুরু করেন।

তারা ‘মানিনা মানবো না’ স্লোগান দিয়ে চিৎকার করতে করতে চেয়ার ভাঙচুর শুরু করেন। মাঠে থাকা কয়েক হাজার চেয়ার ভেঙে ফেলা হয়। এ সময় পুলিশ তৎপর হলে হট্টগোলকারীরা পালিয়ে যান। তখন চেয়ারের আঘাতে ৩-৪ জন আহত হন। এক কর্মী পালানোর সময় পরিচয় গোপন করতে তার নেতার ছবি সংবলিত গেঞ্জি খুলতে থাকেন। তখন তিনি নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে মাঠে গোলপোস্টের পাইপের সঙ্গে প্রচণ্ড জোড়ে ধাক্কাখান। এতে মাথা কেটে প্রচুর রক্তক্ষরণ হয়। আহতরা গোপনে চিকিৎসা নেন।

প্রত্যক্ষদর্শীদের দাবি, চেয়ার ভাঙচুরের সঙ্গে সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী ও ঘোষিত যুগ্ম-সম্পাদক মঞ্জুরুল আলম মোহনের সমর্থকরা ছিলেন।

সদর পুলিশ ফাঁড়ির ইন্সপেক্টর আবুল কালাম আজাদ জানান, তারা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনলেও ভাঙচুরকারীদের চেনা যায়নি।

বগুড়া সদর সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (মিডিয়া) সনাতন চক্রবর্তী জানান, তারা তৎপর না হলে আরও ভাঙচুরের ঘটনা ঘটত। তবে কারা এর সঙ্গে জড়িত সে সম্পর্কে তিনি বলতে রাজি হননি।

জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মজিবর রহমান মজনু, সাধারণ সম্পাদক রাগেবুল আহসান রিপু এবং যুগ্ম-সম্পাদক মঞ্জুরুল আলম মোহন ফোন না ধরায় তাদের বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

পিএনএস/হাফিজ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech