ক্যাসিনোর অর্থের ভাগ-বাটোয়ারা নিয়ে যা বললেন যুবলীগ নেতা খালেদ!

  

পিএনএস ডেস্ক: অবৈধ ক্যাসিনো চালানোর দায়ে আটক যুবলীগ নেতা খালেদ মাহমুদ ভূঁইয়াকে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)। তিনি প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে ক্যাসিনো থেকে উপার্জনের অর্থ কীভাবে ভাগ-বাটোয়ারা হতো সেই বিষয়ে তথ্য দিয়েছেন। তার দেওয়া তথ্য সঠিক কিনা যাচাই-বাছাই করে দেখা হচ্ছে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা।

খালেদের বিরুদ্ধে রাজধানীর মতিঝিল ও গুলশান থানায় আলাদা দু’টি মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলে জানা গেছে। তাকে আজ বৃহস্পতিবার (১৯ সেপ্টেম্বর) আদালতে তোলা হতে পারে।

র‌্যাব সূত্র জানায়, খালেদের ক্যাসিনোর বিষয়ে পুলিশ ছাড়াও আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর অন্য সংস্থা এবং রাজনীতিক প্রভাবশালী ব্যক্তিরা জানতেন। তাদের ‘ম্যানেজ করে’ ক্যাসিনো চালাতেন বলে জিজ্ঞাসাবাদে স্বীকার করেছেন তিনি।

সূত্র আরও জানায়, ক্যাসিনোর থেকে উপার্জিত অর্থের ভাগ-বাটোয়ারার বিষয়েও অনুসন্ধান করা হচ্ছে। সে বিষয়ে কিছু তথ্য পাওয়া গেছে। তবে ‘লিডার’দের ম্যানেজ করার কথা বললেও কারা কারা জড়িত সে বিষয়ে এখনও স্পষ্ট তথ্য পাওয়া যায়নি।

এ বিষয়ে র‌্যাবের লিগ্যাল অ্যান্ড মিডিয়া উইংয়ের পরিচালক লে. কর্নেল সারওয়ার বিন কাশেম বলেন, তাকে আমরা স্বল্প সময় জিজ্ঞাসাবাদের সুযোগ পেয়েছি। তবে জিজ্ঞাসাবাদে প্রাপ্ত তথ্যগুলো সঠিক কিনা, নাকি উদ্দেশ্যমূলকভাবে কারও বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করা হচ্ছে সেগুলো যাচাই করে দেখা হচ্ছে।

তার নিয়ন্ত্রণাধীন আরও ক্যাসিনো রয়েছে কিনা জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমরা অনেক বিষয়েই কিছু তথ্য পেয়েছি, তবে মনে হচ্ছে এগুলো সঠিক নয়। রিমান্ডে এনে অধিকতর জিজ্ঞাসাবাদ করলে তথ্যগুলো নিশ্চিত হওয়া যাবে।

খালেদকে এখনও থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়নি। থানা পুলিশের কাছে হস্তান্তরের পর রিমান্ড চেয়ে তাকে আদালতে পাঠানা হবে বলেও জানান তিনি।

উল্লেখ্য, বুধবার (১৮ সেপ্টেম্বর) রাতে গুলশানের বাসা থেকে খালেদ মাহমুদকে আটক করে র‌্যাব। এ সময় তার কাছ থেকে তিনটি অস্ত্র ও ইয়াবা উদ্ধার করা হয়।

পিএনএস/এএ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech