ছাত্রলীগের নতুন নেতৃত্ব খোঁজার নির্দেশ

  

পিএনএস ডেস্ক : মেয়াদ পূর্ণ হওয়ার আগেই ছাত্রলীগের কমিটির জন্য নতুন নেতৃত্ব খোঁজার নির্দেশ দিয়েছেন আওয়ামী লীগ সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি চান না বর্তমান কমিটি আর ছাত্রলীগের দায়িত্ব পালন করুক। সোমবার জাতীয় সংসদ ভবনে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরসহ জ্যেষ্ঠ নেতাদের উপস্থিতিতে তিনি এ নির্দেশ দেন।

তবে নতুন নেতৃত্ব নির্বাচনের প্রক্রিয়ার বিষয়ে এখনও চূড়ান্ত কোনো আলোচনা হয়নি বলে জানা গেছে। সেখানে উপস্থিত একাধিক নেতা রাতে একটি দৈনিককে এসব কথা জানান।

সূত্র জানায়, ছাত্রলীগ সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের ধারাবাহিক বিতর্কিত কর্মকাণ্ডে ক্ষুব্ধ প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ হাসিনা। তিনি চাচ্ছেন না বর্তমান নেতৃত্বের অধীনে আর ছাত্রলীগ পরিচালিত হোক। সেজন্য দুই বছর মেয়াদি কমিটির দশ মাস বাকি থাকতেই নতুন নেতৃত্ব খোঁজার নির্দেশনা দিয়েছেন। তিনি সাফ জানিয়ে দেন, বর্তমান কমিটি আর ছাত্রলীগের দায়িত্ব পালন করবে না।

জানা গেছে, শনিবার দলের স্থানীয় সরকার ও সংসদীয় মনোনয়ন বোর্ডের যৌথসভায় সভাপতি-সাধারণ সম্পাদকের বিভিন্ন বিতর্কিত কর্মকাণ্ড এবং অযোগ্যতার কারণে এ কমিটি ভেঙে দিতে নির্দেশ দেন প্রধানমন্ত্রী।

কমিটির বিষয় নিয়ে কথা বলতে সেদিনই গণভবনে ছুটে যান ছাত্রলীগের সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন ও সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী। কিন্তু সেখানে তাদের সঙ্গে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা কোনো কথা বলেননি। পরদিন সোমবার গণভবনে গেলে সেখান থেকে ফিরে আসেন তারা। পরপর দু’দিন গণভবনে যাওয়া ও সেখানে দলীয় সভাপতি সাক্ষাৎ না পাওয়া, দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের ছাত্রলীগের কমিটি বাতিল নিয়ে কৌশলী বক্তব্যে তারা হতাশ হয়ে পড়েন।

এ বিষয়ে ছাত্রলীগের পদবঞ্চিত আন্দোলনকারীদের সমন্বয়ক রাকিব হোসেন বলেন, আমরা শুধু নেত্রীর সিদ্ধান্তের অপেক্ষা করছিলাম। তার কাছে সব তথ্য রয়েছে এই বিশ্বাস আমাদের ছিল। অন্যায়-অনিয়ম করলে বঙ্গবন্ধুকন্যা কাউকে ছাড় দেন না সেটা আবার প্রমাণিত হল। আমরা চাই আগামী দিনে ছাত্রলীগের একমাত্র অভিভাবক জননেত্রী শেখ হাসিনা এমন কাউকে নেতৃত্বে নিয়ে আসুক, যার মাধ্যমে সাংগঠনিক শৃঙ্খলা ফিরে আসবে।

পিএনএস/জে এ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন