‘ষড়যন্ত্র করে খালেদা জিয়াকে কারাবন্দি করে রাখা যাবে না’ - রাজনীতি - Premier News Syndicate Limited (PNS)

‘ষড়যন্ত্র করে খালেদা জিয়াকে কারাবন্দি করে রাখা যাবে না’

  


পিএনএস ডেস্ক: ‘ষড়যন্ত্র করে খালেদা জিয়াকে কারাবন্দি করে রাখা যাবে না’ বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। এর আগে আদালতের হাজিরা শেষে অনশন কর্মসূচিতে যোগ দেন তিনি।

বুধবার দুপুর পৌনে ১টার দিকে অনশন ভাঙার ঘোষণা দেয়ার পর জাতীয় প্রেসক্লাব এলাকায় এ কথা বলেন তিনি। এসময় আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কড়াকড়ি এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ভিসি ও বিএনপিপন্থী বুদ্ধিজীবী প্রফেসর ড. এমাজউদ্দীন আহমেদের অনুরোধে দলটির পূর্বঘোষিত অনশন কর্মসূচি তিন ঘণ্টা আগেই শেষ হয়েছে। তবে বুধবার খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে দেশজুড়ে দিনব্যাপী অনশন কর্মসূচি পালন করছে বিএনপি।

এদিকে ১১টার পর সন্দেহভাজন নেতাকর্মীদের আটক করতে তৎপর হয় পুলিশ। একপর্যায়ে এক কর্মীকে আটক করলে অন্যদের সঙ্গে পুলিশের বাকবিতণ্ডা হয়। পরে পুলিশ তাকে ছেড়ে দেয়।

প্রেসক্লাব এলাকায় বিপুলসংখ্যক পুলিশ ও সাদা পোশাকে গোয়েন্দা পুলিশ অবস্থান করছে। বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর নেতাকর্মীদের নিরাপদে সরিয়ে নেয়ার চেষ্টা করছেন। দুপুর পৌনে ১টার দিকে অনশন ভাঙার ঘোষণা দেয়ার পর জাতীয় প্রেসক্লাব এলাকায় অবস্থানরত নেতাকর্মীদের মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে।

পুলিশ বিএনপির অনশন কর্মসূচি সাড়ে ১২টার মধ্যে শেষ করতে বলে। পুলিশের এই নির্দেশের কথা জানতে পেরে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ১২টা ২০ মিনিটে অনশনস্থল থেকে বের হয়ে আসেন। তিনি খুঁজতে থাকেন পুলিশের ঊধ্বর্তন কর্মকর্তাদের। কদম ফোয়ারার কাছে পুলিশের রমনা বিভাগের উপকমিশনার মারুফ হোসেন সরদারকে খুঁজে বের করেন মির্জা ফখরুল।

উপকমিশনারকে তিনি অনুরোধ করে বলেন, আমরা ৫টা নয়, দুপুর ১টায় অবস্থান কর্মসূচি শেষ করব। দয়া করে আর বাধা দেবেন না। পুলিশও মির্জা ফখরুলের অনুরোধ মেনে নেয়। পরে পৌনে ১টার দিকে অনশন কর্মসূচির অবসান ঘটানো হয়।

ঢাকায় জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে ফখরুল বলেন, নির্বাচনের বাইরে রাখতেই খালেদা জিয়াকে অন্যায়ভাবে কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে৷ তবে বিএনপি চেয়ারপারসন আইনগতভাবেই মুক্ত হয়ে আগামী নির্বাচনে অংশ নেবেন বলে মন্তব্য করেন তিনি।

বিএনপি মহাসচিবের অভিযোগ, সরকার খালেদা জিয়া ও বিএনপিকে বাইরে রেখে আবার একটি পাতানো নির্বাচন করতে চাইছে। কিন্তু খালেদা জিয়াকে ছাড়া এদেশে কোনো নির্বাচন হতে দেয়া হবে না।

এর পর ১ টার দিকে খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবি জানিয়ে অনশন শেষ করার ঘোষণা দিয়েছেন বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। আর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক এমাজউদ্দিন আহমেদ এই অনশন ভাঙান।

বুধবার সকালে বিএনপি চেয়ারপারসনের মুক্তির দাবিতে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে আয়োজিত পূর্বঘোষিত অনশন কর্মসূচিতে যোগ দিয়ে মির্জা ফখরুল এ ঘোষণা দেন। তিনি সাড়ে ১১টার পর এই কর্মসূচিতে যোগ দিয়েছিলেন।

পিএনএস/আনোয়ার

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech