বর্জ্য অপসারণ অত্যন্ত চ্যালেঞ্জিং ব্যাপার: মেয়র আতিক

  

পিএনএস ডেস্ক : ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম বলেছেন, বর্জ্য অপসারণ অত্যন্ত চ্যালেঞ্জিং ব্যাপার। সবাই যদি নির্দিষ্ট জায়গায় বর্জ্য রেখে দেয় তাহলে এটা সংগ্রহ করা আমাদের জন্য সহজ হয়ে যায়। অনেকেই নির্দিষ্ট জায়গায় ময়লা রাখে না। এ কারণে ময়লা সংগ্রহ করায় বিলম্ব হয়।

শনিবার (০১ আগস্ট) বিকেলে রাজধানীর ভাটারা (১০০ ফুট) সাইদনগরে কোরবানি পশুর বর্জ্য অপসারণ উদ্বোধনকালে তিনি এসব কথা বলেন।

আতিকুল ইসলাম বলেন, কোরবানির বর্জ্য অপসারণ নিয়ে গত সাতদিন আগেও আমরা কাউন্সিলরদের নিয়ে মিটিং করেছি। সাক্ষাতে ও জুম মিটিং করেছি। নিজ-নিজ ওয়ার্ড পরিষ্কারের দায়িত্ব কাউন্সিলরদের নিতে হবে।

তিনি বলেন, কোরবানির প্রথম দিন বেশি চাপ থাকে। পরের দুই দিনে চাপ একটু কম থাকে। রোববার (২ আগস্ট) ও সোমবার (৩ আগস্ট) অনেকেই কোরবানি দেবেন। আমরা ২৪ ঘণ্টার মধ্যে কোরবানির বর্জ্য অপসারণ করবো।

নগরবাসীদের অনুরোধ জানিয়ে মেয়র বলেন, আপনারা যারা কোরবানি দিয়েছেন, তারা যদি নির্দিষ্ট স্থানে ময়লা রেখে দেন, সিটি করপোরেশনের কর্মীরা সেই স্থান থেকে ময়লা সংগ্রহ করবেন। আমরা সবাই এ শহরের নাগরিক। আমরা সুনাগরিক হলে, এ শহরটা পরিষ্কার থাকবে।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে মেয়র আতিকুল বলেন, একদিকে করোনা মহামারি অন্যদিকে ডেঙ্গুর চ্যালেঞ্জ। দুই চ্যালেঞ্জ নিয়েই আমরা কাজ করছি। কয়েকদিনের মধ্যেই ১১ ওয়াটার ব্রাউজারের মাধ্যমে ব্লিচিং পাউডার ও স্যাভলন ছিটানো হবে।

সিটি করপোরেশনের ওয়েবসাইটে নতুন অ্যাপ চালুর কথা উল্লেখ করে মেয়র বলেন, চার দিন আগে সিটি করপোরেশনের ওয়েবসাইটে একটি অ্যাপ চালু করা হয়েছে। ওয়েবসাইটে গিয়ে আপনারা অ্যাপটি ডাউনলোড করবেন। যে এলাকায় ময়লা-আবর্জনা দেখবেন সেই এলাকার নাম দিয়ে ও ছবি তুলে অ্যাপসের মাধ্যমে আপলোড করবেন। সঙ্গে সঙ্গে ময়লা আবর্জনা অপসারণে সিটি করপোরেশনের কর্মকর্তারা ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন। এটা আমরা সার্বক্ষণিক মনিটরিং করছি। এছাড়াও আপনারা কন্ট্রোলরুমে ফোন করে আমাদের জানাতে পারেন (588 14220, 0960 2222 333, 0960 22222334)। আমরা ২৪ ঘণ্টা আপনাদের সঙ্গে থাকবো।

পিএনএস/এএ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন