রাজধানীতে পাঠাও চালকের রহস্যজনক মৃত্যু

  

পিএনএস ডেস্ক: রাজধানীর শেরেবাংলা নগর থানা এলাকায় জাকির হোসেন লিটন (৪৭) নামে এক শেয়ারিং অ্যাপ পাঠাওয়ের মোটরসাইকেল চালকের রহস্যজনক মৃত্যু হয়েছে।

রোববার (১৬ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যা পৌনে ৬টার দিকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

নিহতের শ্যালক নাজির উদ্দিন জানান, গত ৭ ফেব্রুয়ারি শ্যামলী আদাবর ঢাকা হাউজিং এলাকার বাসা থেকে পাঠাও মোটরসাইকেল নিয়ে বের হন জাকির। রাত সাড়ে ১২টায় স্ত্রী শিল্পী বেগমকে ফোন দিয়ে বলেন, তার আসতে আধাঘণ্টা দেরি হবে। এরপর থেকেই তার ফোন বন্ধ পাওয়া যায়। গত ৮ ফেব্রুয়ারি আদাবর থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করে তার পরিবার।

তিনি আরও জানান, জাকিরের হারিয়ে যাওয়া মোবাইল থেকে ইমো নম্বরের মাধ্যমে শ্যামলীর বাসার সাবলেটের ভাড়াটিয়াকে ফোন করে এক লাখ টাকার দাবি করেন কে বা কারা। টাকা না দিলে মেরে ফেলারও হুমকি দেয়া হয়। এরপর থেকে সেই নম্বর বন্ধ পাওয়া যায়।

গত মঙ্গলবার (১১ ফেব্রুয়ারি) ফেসবুকের মাধ্যমে সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালে জাকিরের সন্ধান পায় তার পরিবার। একইসঙ্গে শেরেবাংলা নগর থানায় তার মোটরসাইকেল থাকার সংবাদ জানেন তারা।

থানা থেকে জানানো হয়, গত ৭ ফেব্রুয়ারি শেরেবাংলা নগর থানা এলাকার একটি রাস্তায় মোটরসাইকেল ও জাকিরকে পড়ে থাকতে দেখে পুলিশ। পরে তাকে সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

পরে স্বজনরা মঙ্গলবার গ্রিনরোডের একটি বেসরকারি হাসপাতালের আইসিইউতে জাকিরকে ভর্তি করান। সেখান থেকে রোববার সন্ধ্যা পৌনে ৬টায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে আসলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। স্বজনদের অভিযোগ, কেউ তাকে মারার উদ্দেশ্যে পিটিয়ে রাস্তায় ফেলে রেখে যায়।

ঢামেক পুলিশ ক্যাম্পের পুলিশ পরিদর্শক বাচ্চু মিয়া জানান, মরদেহটি ময়নাতদন্তের জন্য ঢামেক মর্গে রাখা হয়েছে।

নিহতের গ্রামের বাড়ি মুন্সিগঞ্জ জেলার গজারিয়া থানার করিম খাঁ গ্রামের মৃত আব্দুল রাশেদ প্রধানের ছেলে জাকির। বর্তমানে শ্যামলী আদাবর ঢাকা হাউজিং এলাকায় ভাড়া বাসায় পরিবারের সঙ্গে থাকতেন।

পিএনএস/হাফিজ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন