জনগণের অধিকার প্রতিষ্ঠায় আইনজীবীদের ভূমিকা গুরুত্বপূর্ণ: স্পিকার

  

পিএনএস ডেস্ক: জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী এমপি বলেছেন, জনগণের অধিকার প্রতিষ্ঠায় সকল অন্যায়কে রুখে দিয়ে আইনজীবীরা যুগে যুগে ভূমিকা রেখেছেন। সংবিধানকে সমুন্নত রেখে গণতান্ত্রিক অগ্রযাত্রায় আইনজীবীদের ঐক্যের বিকল্প নেই- কেননা ঐক্যেই জয়। লালদিঘী হত্যাকাণ্ডে মরহুম শহীদুল হুদা নামক একজন আইনজীবীই প্রথম মামলা করেছিলেন বলে জানান স্পীকার।

শনিবার (২৫ জানুয়ারি) রাতে চট্টগ্রামস্থ আইনজীবী অডিটোরিয়াম, আদালত ভবনে চট্টগ্রাম জেলা আইনজীবী সমিতির উদ্যোগে ‘বার্ষিক ভোজ-২০১৯’ শীর্ষক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন স্পিকার।

তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সুযোগ্য নেতৃত্বে আইনের শাসন প্রতিষ্ঠায় সরকার অঙ্গীকারবদ্ধ। বঙ্গবন্ধু হত্যা ও যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের মাধ্যমে বাংলাদেশ বিচারহীনতার সংস্কৃতি থেকে বেরিয়ে এসেছে। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান জাতিকে উপহার দিয়েছিলেন বিশ্বসেরা সংবিধান। ক্ষুধা, দারিদ্র‍্য ও বৈষম্যমুক্ত বঙ্গবন্ধুর স্বপ্নের সোনার বাংলা তখনই দৃশ্যমান হবে যখন আইনের শাসন প্রতিষ্ঠিত হবে।

মনোমুগ্ধকর এই আয়োজনের জন্য স্পিকার চট্টগ্রাম জেলা আইনজীবী সমিতিকে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, এমন উৎসবমুখর ও সৃজনশীল আয়োজন নিঃসন্দেহে প্রশংসার দাবি রাখে। এ ধরনের আয়োজন সকলকে সৃষ্টিশীল ও সম্ভাবনাময় কাজে অনুপ্রাণিত করবে। অনুষ্ঠানে চট্টগ্রাম জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকগণকে সম্মাননা ক্রেস্ট প্রদান করেন স্পিকার।

ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেন, গণতন্ত্রের সুফল তৃণমূলে পৌঁছে দিতে আইনজীবীদের ভূমিকা অনস্বীকার্য। সংবিধানের মর্মার্থ সাধারণ মানুষের কাছে অর্থবহ করে তুলতে আইনজীবী সমাজ কাজ করেন।

স্পিকার বলেন, আইন পেশায় নারী আইনজীবীদের অংশগ্রহণ দৃশ্যমান। তাদের জন্য ইতিবাচক পরিবেশ নিশ্চিত করতে সকলকে একযোগে কাজ করার আহ্বান জানান তিনি।

ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেন, বাংলাদেশ আজ অনন্য উচ্চতায়- বিশ্বকে তাক লাগিয়ে আজ দেশে নির্মিত হচ্ছে পদ্মাসেতু। বঙ্গবন্ধু টানেল এখন কোন অলীক কল্পনা নয়- লন্ডনের টেমস নদীর ন্যায় কর্ণফুলির তলদেশে নির্মিত হচ্ছে এই টানেল। মুজিববর্ষ উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে উন্নত বাংলাদেশ গঠনে আইনজীবীদের একত্রে কাজ করার আহ্বান জানান স্পীকার।

চট্টগ্রাম জেলা আইনজীবী সমিতির সভাপতি এ. এস. এম. বদরুল আনোয়ার-এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে হাইকোর্ট বিভাগের বিচারপতি এ. কে. এম. আবদুল হাকিম, বাংলাদেশ বার কাউন্সিল এর সদস্য মুহাম্মদ দেলোয়ার হোসেন চৌধুরী, জেলা ও দায়রা জজ মো. ইসমাইল হোসেন, মহানগর দায়রা জজ শেখ আশফাকুর রহমান বক্তব্য প্রদান করেন।

অনুষ্ঠানে চট্টগ্রাম জেলা আইনজীবী সমিতির নেতৃবৃন্দ, স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ, বাংলাদেশ জাতীয় সংসদ সচিবালয়ের কর্মকর্তাবৃন্দসহ গণমাধ্যমকর্মীগণ উপস্থিত ছিলেন। চট্টগ্রাম জেলা আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ আইয়ুব খান অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য প্রদান করেন।

পিএনএস/এএ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech