বাড্ডায় গণপিটুনিতে রেনু হত্যা: ছয় আসামির জামিন

  

পিএনএস ডেস্ক : এক বছরের বেশি সময় আগে রাজধানীর উত্তর বাড্ডায় একটি প্রাথমিক স্কুলে ছেলেধরা সন্দেহে তাসলিমা বেগম রেনুকে পিটিয়ে হত্যার ঘটনায় অভিযোগপত্রভুক্ত আসামি মোহাম্মদ রাজুকে জামিন দিয়েছে হাইকোর্ট।

মঙ্গলবার সংশ্লিষ্ট আদালতের ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল ড. মো. বশির উল্লাহ এ তথ্য নিশ্চিত করে জানান, রাজুর জামিন স্থগিত চেয়ে আপিল বিভাগে আবেদন করা হয়েছে। সোমবার বিচারপতি জাহাঙ্গীর হোসেন ও বিচারপতি মো. বদরুজ্জামানের ভার্চুয়াল হাইকোর্ট বেঞ্চ থেকে জামিন পান রাজু।

এদিকে রেনু হত্যা মামলায় হাইকোর্টে এর আগে আরও পাঁচ আসামির জামিনের তথ্য জানা গেছে। গত বছরের নভেম্বর থেকে চলতি বছরের বিভিন্ন সময়ে মামলার আরও পাঁচ আসামি রিয়া বেগম ময়না, বাচ্চু মিয়া, মোহাম্মদ শাহীন, মো. মুরাদ মিয়া ও মো. বাপ্পি হাইকোর্ট থেকে জামিন পান। এর মধ্যে রিয়া বেগম ময়না গত বছরের ২৫ নভেম্বর, বাচ্চু মিয়া ও মোহাম্মদ শাহিন গত ২৬ জানুয়ারি এবং মুরাদ মিয়া গত ৩ ফেব্রুয়ারি এবং বাপ্পি গত ৬ জুন হাইকোর্টের একটি ভার্চুয়াল বেঞ্চে জামিন পান।

ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল ড. বশির উল্লাহ বলেন, এ মামলার আরও দুই আসামি মো. শাহীন ও বাচ্চু মিয়ার হাইকোর্টের একটি বেঞ্চে জামিনের বিষয়টি উল্লেখ করে রাজুর জামিনের আরজি জানান। আদালত জামিনের আবেদন মঞ্জুর করেন। আমরা জানতে পেরেছি অন্যান্য বেঞ্চ থেকে যারা জামিন নিয়েছে তাদের প্রত্যেকের বিষয়ে আপিল করা হয়েছে।

আলোচিত এ হত্যা মামলায় গত ১০ সেপ্টেম্বর ১৫ জনকে আসামি করে ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করে গোয়েন্দা পুলিশ। আসামিদের মধ্যে মো. মহিউদ্দিন এখনো পলাতক।

২০১৯ সালের ২০ জুলাই সকালে সন্তানের ভর্তির বিষয়ে জানতে উত্তর বাড্ডা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে যান তাসলিমা বেগম রেনু। সেখানে ছেলেধরা সন্দেহে বেধড়ক পেটায় কিছু উচ্ছৃঙ্খল মানুষ। গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক রেনুকে মৃত ঘোষণা করেন।

এ ঘটনায় রেনুর বোনের ছেলে সৈয়দ নাসিরউদ্দিন টিটু বাদী হয়ে বাড্ডা থানায় অজ্ঞাত ৪০০-৫০০ জনকে আসামি করে মামলা দায়ের করেন। গত বছরের ২৭ আগস্ট রেনুর পরিবারকে কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ দেওয়ার প্রশ্নে রুল জারি করে হাইকোর্টের একটি বেঞ্চ।

পিএনএস/এসআইআর


 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন