জুয়েলার্স সমিতির নির্বাচন দুই মাস স্থগিত

  

পিএনএস ডেস্ক :বাংলাদেশ জুয়েলার্স সমিতির (বাজুস) ২০১৯-২০২১ সালের নির্বাচন দুই মাসের জন্য স্থগিত করেছেন হাইকোর্ট। একইসঙ্গে নির্বাচন নিয়ে এফবিসিসিআই'র সালিশ ট্রাইব্যুনালের সিদ্ধান্ত কেন অবৈধ হবে না তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছেন আদালত।

বাণিজ্য সচিবসহ ১২৯ জনকে এ রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে। আগামী ৮ নভেম্বর রুলের শুনানি অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে।

সোমবার (৪ নভেম্বর) বিচারপতি শেখ হাসান আরিফ ও বিচারপতি মো. মাহমুদ হাসান তালুকদার সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্টের দ্বৈত বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

আদালতে আবেদনের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস, ব্যারিস্টার মেহেদী হাসান চৌধুরী ও আইনজীবী ইমাম হাসান।

অপরপক্ষে ছিলেন জ্যেষ্ঠ আইনজীবী ব্যারিস্টার রোকন উদ্দিন মাহমুদ, এ এম আমিন উদ্দিন ও অতিরিক্ত অ্যাটর্নি জেনারেল মুরাদ রেজা।

আইনজীবী ইমাম হাসান জানান, এ নির্বাচনের জন্য ১২ সেপ্টেম্বর একটি প্রাথমিক তালিকা প্রকাশ করা হয়। যেখানে ১১৪ জনের বিষয়ে আপত্তি জানিয়ে ১৮ সেপ্টেম্বর নির্বাচনী বোর্ডের আবেদন করেন নির্বাচনের প্রার্থী বিপুল ঘোষ (শঙ্কর)। কিন্তু নির্বাচনী বোর্ড ২৯ সেপ্টেম্বর ওই ১১৪ জনকে রেখে চূড়ান্ত ভোটার তালিকা প্রকাশ করেন। পরে তিনি এফবিসিসিআই'র আরবিট্রেশন ট্রাইব্যুনালে আবেদন করে। এর মধ্যে তিনি হাইকোর্টে রিটও করেন। ৩০ অক্টোবর আরবিট্রেশন ট্রাইব্যুনাল আবেদন খারিজ করেন।

পরে বিপুল ঘোষ হাইকোর্টে একটি সম্পূরক আবেদন করেন। ওই আবেদনের শুনানি নিয়ে আদালত নির্বাচনের ওপর দুই মাসের স্থগিতাদেশ দিয়ে এক সপ্তাহের রুল জারি করেছেন।

আগামী ৮ নভেম্বর বাজুসের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল।

পিএনএস/এএ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন