নেত্রকোণায় শিক্ষক হত্যার দায়ে শিক্ষকের যাবজ্জীবন

  

পিএনএস ডেস্ক : নেত্রকোণার বারহাট্টায় এক শিক্ষককে হত্যার দায়ে অপর এক শিক্ষককে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। সেই সাথে ২৫ হাজার টাকা জরিমানা এবং অনাদায়ে আরও ২ মাসের কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। নেত্রকোণার জেলা ও দায়রা জজ কেএম রাশেদুজ্জামান রাজা সোমবার দুপুরে আসামির উপস্থিতিতে এই রায় দেন। নিহত শিক্ষকের নাম মো. মোজাম্মেল হককে (৫৯)। তিনি গোড়ল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের অবসরপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক ছিলেন। সাজাপ্রাপ্ত আনোয়ার (৩০) বারহাট্টা উপজেলার আসমা ইউনিয়নের গাভারকান্দা গ্রামের মৃত মঞ্জিল মিয়ার ছেলে।

মামলার বিবরণে জানা যায়, গাভারকান্দা গ্রামের মৃত হাছেন আলী বেপারীর ছেলে গোড়ল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোজাম্মেল হক অবসর নিয়ে হাজীগঞ্জ উচ্চ বিদ্যালয়ে বিকেলে ৮ম ও ১০ম শ্রেণির ছাত্র-ছাত্রীদের প্রাইভেট পড়াতেন। কিন্তু হাজীগঞ্জ স্কুলের প্রধান শিক্ষক মো. আইন উদ্দিন স্কুলে প্রাইভেট পড়াতে নিষেধ করেন। এ নিয়ে দুই জনের মধ্যে বিরোধ হয়।

২০০৮ সালের ১১ ডিসেম্বর দুপুরে মোজাম্মেল হক হাজীগঞ্জ বাজারে গেলে আইন উদ্দিন তাকে ডেকে তাদের দোকানে নিয়ে যায়। এ সময় কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে ক্ষিপ্ত হয়ে আইন উদ্দিনের লোকজন তার মাথায় আঘাত করলে তিনি মারাত্মক আহত হন। স্থানীয় লোকজন তাকে উদ্ধার করে প্রথমে নেত্রকোণা পরে ময়মনসিংহ ও ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করলে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ১৯ ডিসেম্বর তিনি মারা যায়।

পরে মৃতের ছোটভাই নুরুল ইসলাম আজাদ বাদী হয়ে ৫ জনকে আসামি করে ওই দিনই বারহাট্টা থানায় একটি হত্যা মামলা করেন। পুলিশ তদন্ত শেষে ২০১৫ সালের ২৩ ফেব্রুয়ারি চারজনের বিরুদ্ধে আদালতে চার্জশিট দাখিল করে। বিচারক ১১ জন স্বাক্ষীর সাক্ষ্য গ্রহণ করে আসামি আনোয়ারের বিরুদ্ধে অপরাধ সন্দেহাতীত ভাবে প্রমাণিত হওয়ায় যাবজ্জীবন কারাদণ্ড মামলার অপর আসামিদের বেকসুর খালাস প্রদান করেন।

পিএনএস/জে এ /মোহন

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech