যুগ্ম জেলা জজকে সতর্ক করলেন আপিল বিভাগ - আইন-আদালত - Premier News Syndicate Limited (PNS)

যুগ্ম জেলা জজকে সতর্ক করলেন আপিল বিভাগ

  


পিএনএস ডেস্ক: নির্দেশ থাকার পরও এক যুগ আগে ২০০৬ সালে দায়ের মামলা নিষ্পত্তি না হওয়ায় নারায়ণগঞ্জ জেলা আদালতের এক যুগ্ম জেলা জজকে তলব করে সতর্ক করেছেন আপিল বিভাগ। তলব আদেশের পর হাজির হয়ে যুগ্ম-জজ মো. সফিকুল ইসলাম আদালতের কাছে নিশর্ত ক্ষমা চান।

এরপর মঙ্গলবার (১৩ ফেব্রুয়ারি) সকালে প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বাধীন চার বিচারপতির আপিল বেঞ্চ তাকে সতর্ক করেন। একই সঙ্গে দুই মাসের মধ্য ওই মামলা নিষ্পত্তির নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

শুনানিকালে প্রধান বিচারপতি ওই যুগ্ম-জেলা জজকে উদ্দেশ করে বলেন, ‘আর কতদিন? আরো কি ১০ বছর লাগবে এই মামলাটি নিষ্পত্তি করতে?’

জবাবে সফিকুল ইসলাম বলেন, ‘এই মামলাটি এর আগে আমার কাছে ছিল না।’ এরপর প্রধান বিচারপতি বলেন, ‘আপনার কাছে এটা কতদিন?’ বিচারক উত্তরে বলেন, ‘এক বছর।’

পরে প্রধান বিচারপতি বলেন, ‘এক বছরেও আপনি পারেননি? কাজকর্ম করেন, না শুধু গল্পগুজব করেন কোর্টে?’

জবাবে সফিকুল ইসলাম বলেন, ‘আমার আদালতে ৭ হাজারের অধিক মামলা রয়েছে।’ এরপর আপিল বিভাগের কাছে নিঃশর্ত ক্ষমা চান। এরপর আপিল বিভাগ সময় বেঁধে দিয়ে মামলাটি নিষ্পত্তির নির্দেশ দেন।

প্রসঙ্গত, তিতাস গ্যাস কর্তৃপক্ষের দাবি করা ১২ মাসের বিল অবৈধ ঘোষণা চেয়ে একটি প্রতিষ্ঠান নিম্ন আদালতে মামলা করে। পাশাপাশি ৩ লাখ টাকা করে বিল দিতে অনুমতি দেয়ার আর্জি জানানো হয়।

কিন্তু, নিম্ন আদালত ২০০৭ সালের ১৫ মার্চ ওই আর্জি খারিজ করে দেন। পরে এই খারিজ আদেশের বিরুদ্ধে হাইকোর্টে আবেদন করে প্রতিষ্ঠানটি। সে আবেদনের চূড়ান্ত শুনানি শেষে ২০০৮ সালের ৪ জুলাই হাইকোর্ট রায় দেন।

রায়ে প্রতিমাসে ১৭ লাখ টাকা করে বকেয়া ও সাড়ে ৭ লাখ টাকা করে নিয়মিত মাসিক বিল পরিশোধ করতে বলা হয়। পাশাপাশি কোনো ধরনের বিলম্ব ছাড়া ২০০৮ সালের ৩০ নভেম্বরের মধ্যে যুগ্ম জেলা জজকে এই মামলা নিষ্পত্তি করতে বলা হয়।

তবে হাইকোর্টের ওই রায়ের বিরুদ্ধে তিতাস গ্যাস কর্তৃপক্ষ আপিল করলে তা শুনানির জন্য সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগে আসে। গত ৭ ফেব্রুয়ারি শুনানিকালে এই মামলাটি ২০০৮ সালের ৩০ নভেম্বরের মধ্যে নিষ্পত্তি করার বিষয়টি আদালতের নজরে আসে।

এরপরই আপিল বিভাগ এই মামলার নথিসহ নারায়ণগঞ্জ আদালতের যুগ্ম-জেলা জজ সফিকুল ইসলামকে আজ আপিল বিভাগে উপস্থিত হতে আদেশ দেন।

পিএনএস/আনোয়ার

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech