মালয়েশিয়ার হাইকোর্টে রায়হান কবিরের আবেদন খারিজ

  

পিএনএস ডেস্ক : লকডাউনের মধ্যে প্রবাসী শ্রমিকদের নিয়ে আল জাজিরাকে সাক্ষাতকার দেওয়া বাংলাদেশি নাগরিক রায়হান কবিরের রিমান্ড কমানোর আবেদন খারিজ করে দিয়েছে মালয়েশিয়ার হাইকোর্ট।
বৃহস্পতিবার তার আইনজীবী সুমিথা শান্তিনি কিশনা জানিয়েছেন, রায়হান কবিরের রিমান্ড কুয়ালালামপুর হাইকোর্ট বহাল রেখেছে। এ খবর জানিয়েছে ফ্রি মালয়েশিয়া টুডে।

সুমিথা ও তার সহকর্মী সেলভারাজা চিন্নিয়া জানিয়েছেন, অভিবাসন কর্তৃপক্ষ তাদের মক্কেলকে (রায়হান কবির) ৬ আগস্ট থেকে ১৯ আগস্ট পর্যন্ত (১৩ দিন) রিমান্ড পেয়েছে।

তারা বলেন, আমরা এই আদেশের রিভিশনের পক্ষে যুক্তি দিয়েছিলাম তার গ্রেফতারের পরে প্রথম ১৪ দিনের রিমান্ড (২৪ জুলাই) প্রয়োজনীয় তদন্ত পরিচালনার জন্য যথেষ্ট। তাই দ্বিতীয় দফা রিমান্ডের মেয়াদ কমানোর আবেদন আমরা করেছিলাম।

তবে হাইকোর্টের দুই সদস্যের বিচারক এবি করিম ও এবি রহমানের বেঞ্চ ১৩ দিন রিমান্ড যথার্থ বলে মন্তব্য করেছেন।

বিচারক এবি করিমের বরাত দিয়ে দেশটির জাতীয় সংবাদ সংস্থা বলছে, তদন্তকারী কর্মকর্তা তার প্রতিবেদনে উল্লেখ করেছেন তাকে (রায়হান) তদন্তের জন্য রিমান্ডে নেওয়া হয়েছিল এবং তার গ্রেফতার জাতির অখণ্ডতার সঙ্গে সম্পর্কিত।

গত ৩ জুলাই আল জাজিরায় প্রচারিত ‘১০১ ইস্ট’ অনুষ্ঠানে ‘লকড আপ ইন মালয়েশিয়াস লকডাউন’ শিরোনামে ২৫ মিনিট ৫০ সেকেন্ডের ওই প্রতিবেদন প্রচারিত হয়। এতে করোনাভাইরাস মহামারীতে মালয়েশিয়ায় অবৈধ অভিবাসীদের সঙ্গে সরকারের আচরণ নিয়ে কথা বলেছিলেন রায়হান কবির। সংবাদমাধ্যমটির ইউটিউব চ্যানেলে প্রতিবেদনটি প্রকাশের পর থেকে সমালোচনা শুরু হয়। দেশটির সরকার এমন অভিযোগ সরাসরি অস্বীকার করেছে। ২৪ জুলাই সন্ধ্যায় তাকে গ্রেফতার করা হয়। ২৫ জুলাই তাকে ১৪ দিনের এবং পরে আবার নতুন করে ১৩ দিনের রিমান্ডে নেওয়া হয়।

এর আগে মালয়েশিয়ার অভিবাসন কর্তৃপক্ষের মহাপরিচালক ইন্দিরা খায়রুল দায়মি দাউদ বলেছিলেন, আগামী ৩১ আগস্ট মালয়েশিয়া থেকে বাংলাদেশে ফ্লাইট আসবে। ওই ফ্লাইটেই ফেরত পাঠানো হবে রায়হান কবিরকে।

পিএনএস/এসআইআর


 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন