ওপার বাংলায় ঘূর্ণিঝড় আম্পানে ৭২ জনের মৃত্যু

  

পিএনএস ডেস্ক : ভারতের পশ্চিমবঙ্গে ঘূর্ণিঝড় আম্পানে ৭২ জনের মৃত্যু হয়েছে বলে জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে মুখ্যমন্ত্রীর কার্যালয় নবান্নে এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান তিনি।

ভারতের সংবাদমাধ্যম হিন্দুস্থান টাইমসের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, কলকাতায় ১৫ জন, উত্তর ২৪ পরগনায় ১৭ জন ও হাওড়ায় ৭ জন প্রাণ হারিয়েছেন। এ ছাড়া পশ্চিমবঙ্গের দক্ষিণাঞ্চলের বাকি জেলাগুলো থেকেও মৃত্যুর খবর এসেছে।

ঝড়ে নিহতদের পরিবারকে আড়াই লাখ টাকা করে ক্ষতিপূরণ দেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ‘আম্পানের কারণে ৭২ জনকে আমরা হারিয়েছি। এছাড়া হাজার হাজার ঘরবাড়ি ও গাছপালা ধ্বংস হয়ে গেছে। বৈদ্যুতিক খুঁটি উপড়ে পড়ে সংযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে আছে। নিম্নাঞ্চলে বন্যা লেগে বিধ্বস্ত হয়ে গেছে। কর্তৃপক্ষ ত্রাণ তৎপরতার জন্য লড়াই চালিয়ে যাচ্ছে প্রাণঘাতী করোনা ভাইরাস সংকটের মধ্যেও।’

মুখ্যমন্ত্রী বলেন, আম্পানে ক্ষয়ক্ষতির মাত্রা করোনাভাইরাসের চেয়েও বেশি।

তিনি জানান, ঘূর্ণিঝড়ে পশ্চিমবঙ্গে প্রায় ১ লাখ কোটি টাকার ক্ষতি হয়েছে। দক্ষিণ ও উত্তর ২৪ পরগনা জেলা দুটো প্রায় ধ্বংস হয়ে গেছে। অনেক জায়গায় বিদ্যুৎ নেই।

মমতা বন্দপাধ্যায় বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রীকে বলব, এসে দেখে যান কী পরিস্থিতি।’

ভারতের সংবাদমাধ্যম এই সময়ের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, কলকাতায় সকাল সাড়ে ৯টা অবধি ৩৭৮টি গাছ পড়ার খবর এসেছে। বাড়ি ভেঙেছে ৯টি। কলকাতায় অধিকাংশ রাস্তাতেই গাছ পড়ে রয়েছে। বিদ্যুৎবিচ্ছিন্ন হওয়ায় ব্যাহত ট্রাফিক সিগন্যালও। শহর স্বাভাবিক হতে সময় লাগবে।

পিএনএস/জে এ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন