ইউক্রেনে ভয়াবহ হামলার শিকার চীনফেরত নাগরিকরা

  


পিএনএস ডেস্ক: ইউক্রেনের একটি শহরে শতাধিক বিক্ষোভকারী করোনাভাইরাস-আক্রান্ত চীন থেকে সরিয়ে নেওয়া বাসে হামলা চালিয়েছে।

উদ্ধারকৃতদের সেন্ট্রাল পোলতাভা অঞ্চলের নোভি সানঝরির হাসপাতালে আনা হচ্ছে, সেখানে তারা ১৪ দিনের জন্য পৃথক অবস্থায় থাকবে।

ইউক্রেন নিরাপত্তা সংস্থা (এসএসইউ) জানায়, একটি ভুয়া ইমেলে ছড়ানো হয়েছে চীন ফেরতদের মধ্যে কয়েকজন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত।

এরআগে বৃহস্পতিবার ৪৫ জন ইউক্রেনীয় এবং ২৭ জন বিদেশী নাগরিক চীনের উহান থেকে পূর্ব ইউক্রেনের খারকিভে আনা হয়।

এরপরে ছয়টি বাস তাদের নোভি সানঝরির হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার সময় বিক্ষোভকারীরা এসব বাস লক্ষ করে পাথর ছুঁড়ে ও আগুন জ্বালিয়ে রাস্তা বন্ধ করার চেষ্টা করে।

দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, যাত্রীদের কেউই অসুস্থ ছিল না।

ইউক্রেনের কূটনৈতিক মিশন জানায়, তিনজন ইউক্রেনিয়ান এবং কাজাখস্তানের বাসিন্দা জ্বরের কারণে চীন থেকে আসতে পারেনি।

প্রধানমন্ত্রী ওলেকসি হনচরুক, স্বাস্থ্যমন্ত্রী জোরিয়ানা স্কেলেটস্কা এবং স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আরসেন আভাকভ সকলেই উত্তেজনা থামানোর চেষ্টা করে যাচ্ছেন।

এক বিবৃতিতে ইউক্রেনের জেলেনস্কি তাদের প্রতি সমবেদনা জানিয়ে প্রতিবাদ করা থেকে বিরত থাকার আহ্বান জানিয়েছেন। এক বিবৃতিতে তিনি বলেন, বেশিরভাগ যাত্রী ৩০ বছরের কম বয়সী। তারা আমাদের কাছে শিশুদের মতোই। আমরা সবাই মানুষ এবং আমরা সকলেই ইউক্রেনিয়ান। আমরা প্রত্যেকে মহামারী চলাকালীন যারা উহানের মধ্যে এসেছিল তাদের অন্তর্ভুক্ত।

কোভিড-১৯ নামের এই রোগের ৭৬ হাজারের বেশি মানুষ আক্রান্ত হয়েছে এবং ২ হাজার ২৩৬ জন মারা গেছে। বিবিসি।

পিএনএস/আনোয়ার

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন