‘রাষ্ট্রভাষা হিন্দি’ নিয়ে সমালোচনার মুখে সুর পাল্টালেন অমিত শাহ

  


পিএনএস ডেস্ক: ভারতের রাষ্ট্রভাষা হিন্দি হওয়া উচিত এমন মন্তব্য করার পর দেশজুড়ে ব্যাপক সমালোচনার পর এবার সুর পাল্টালেন দেশটির কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ও বিজেপি’র সভাপতি অমিত শাহ। বুধবার অমিত শাহ বললেন, কারও উপর জোর করে হিন্দি ভাষা চাপিয়ে দেওয়ার কথা বলিনি। মাতৃভাষার পাশাপাশি একটা দ্বিতীয় ভাষা থাকা উচিত, যেটা হিন্দি।

ভারতের সংবাদসংস্থা এএনআইকে বিজেপি সভাপতি অমিত শাহ বলেন, ‘অন্যান্য আঞ্চলিক ভাষার উপর জোর করে কখনই হিন্দি চাপিয়ে দেওয়ার কথা বলিনি। শুধুমাত্র অনুরোধ করে বলেছিলাম, মাতৃভাষার পাশাপাশি দ্বিতীয় ভাষা হিসেবে হিন্দি শেখানো হোক। আমি নিজে একজন অহিন্দু রাজ্য গুজরাট থেকে এসেছি। যদি কেউ এটা নিয়ে রাজনীতি করতে চান, তাহলে সেটা তার ব্যাপার।’

প্রসঙ্গত, গত সপ্তাহে ভারতের ‘কমন ল্যাঙ্গুয়েজ’ হিসেবে হিন্দির উপর জোর দেওয়ার কথা বলেছিলেন শাহ। হিন্দি দিবসে তিনি বলেছিলেন, ‘প্রত্যেক ভাষার নিজস্ব গুরুত্ব রয়েছে। কিন্তু গোটা দেশে একটা ভাষা থাকা দরকার, যা বিশ্ব দরবারে ভারতের পরিচিতি হয়ে উঠবে। এরকম কোনও ভাষা যদি থাকে, যা ভারতকে এক সূত্রে বাঁধতে পারবে, যে ভাষায় বেশি সংখ্যক মানুষ কথা বলেন, তা হল হিন্দি।’ অমিত শাহের এই বক্তব্যের পরই ভারতজুড়ে সমালোচনা হয়।

পিএনএস/আনোয়ার

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech