শ্রীলঙ্কায় গির্জা-হোটেলে সিরিজ বিস্ফোরণে নিহত ১৩৮

  


পিএনএস ডেস্ক: শ্রীলঙ্কায় ইস্টার সানডে উদ্‌যাপনের দিনে সিরিজ বিস্ফোরণে কমপক্ষে ১৩৮ জন নিহত হয়েছে। আহত ২০০ জনের বেশি। বিবিসি ও রয়টার্সের প্রতিবেদনে এই তথ্য জানানো হয়।

আজ রোববার সকালে ইস্টার সানডের আয়োজন ঘিরে রাজধানী কলম্বো ও তার পাশের তিনটি গির্জা ও তিনটি হোটেলে এই বিস্ফোরণ ঘটে। দেশটির পুলিশ এই তথ্য জানিয়েছে।

আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমের প্রতিবেদনে বলা হয়, বিস্ফোরণে নিহত ব্যক্তিদের মধ্যে অন্তত দুজন বিদেশি আছেন।

এ বিষয়ে শ্রীলঙ্কায় নিযুক্ত বাংলাদেশের হাইকমিশনার রিয়াজ হামিদুল্লাহ বলেন, যে দুজন বিদেশি নিহত হয়েছেন, তাঁরা কোন দেশের নাগরিক, তা শ্রীলঙ্কার কর্তৃপক্ষ নিশ্চিত করেনি।
বিবিসি জানিয়েছে, ছয়টি বিস্ফোরণের কথা জানা গেছে।

আক্রান্ত তিনটি গির্জা হচ্ছে কচিহিকাডে, নেগোম্বো ও বাটিকালোয়া। এ ছাড়া হোটেল তিনটি হলো কলম্বোর শাংগ্রিলা, সিনামন গ্র্যান্ড ও কিংসবারি।

খ্রিষ্টধর্মে বিশ্বাসীদের জন্য খুবই আনন্দের ও তাৎপর্যপূর্ণ একটি দিন ইস্টার সানডে। এই দিনে খ্রিষ্টধর্মের প্রবর্তক যিশুখ্রিষ্ট মৃত্যু থেকে পুনরুত্থান করেছিলেন।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া ছবিতে দেখা যায়, নেগোম্বোর সেন্ট সেবাস্টিয়ান গির্জার ছাদ ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। গির্জার বেঞ্চে রক্ত লেগে রয়েছে।

শ্রীলঙ্কার স্থানীয় সংবাদমাধ্যমগুলোয় বলা হচ্ছে, বিস্ফোরণে বিদেশি পর্যটকেরাও হতাহত হয়েছেন।

কিছু গণমাধ্যমে নিহত মানুষের সংখ্যা আরও বেশি হতে পারে বলে উল্লেখ করা হয়েছে।

বাটিকালোয়ার হাসপাতাল সূত্র বিবিসিকে জানিয়েছে, শুধু সেখানেই নিহত মানুষের সংখ্যা ২৭।

বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে পুলিশের একটি সূত্র বলেছে, শুধু নেগোম্বোতে নিহত মানুষের সংখ্যা ৫০ ছাড়িয়েছে।

দেশটির প্রধানমন্ত্রীর বাসভবনের কাছে অবস্থিত সিনামন গ্র্যান্ড হোটেলের এক কর্মকর্তা বার্তা সংস্থা এএফপিকে বলেছেন, তাঁদের একটি রেস্তোরাঁয় বিস্ফোরণে একজন নিহত হয়েছেন।

বিস্ফোরণের ধরন এখনো পরিষ্কার নয়। এই ঘটনায় এখন পর্যন্ত কেউ দায় স্বীকার করেনি।

পিএনএস/আনোয়ার

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech