যে গ্রামের বাসিন্দারা ৪২ দিন কথা বলেন না!

  


পিএনএস ডেস্ক: ভারতের এমন কিছু গ্রাম আছে যেসব গ্রামের বাসিন্দারা ৪২ দিন তেমন কথা বলেন না। পালন করেন নীরবতা। দেশটির হিমাচল প্রদেশের মানালির কুলু জেলার গোশাল গ্রামের বাসিন্দারা জানুয়ারি মাসের ১৪ তারিখ থেকে ফেব্রুয়ারির ২৫ তারিখ পর্যন্ত কোনও কথা বলেন না। এছাড়াও বুরুয়া, শানাগ ও কুলাং গ্রামেও এই প্রথা রয়েছে।

দেশটির স্থানীয় সংবাদ মাধ্যম জানায়, হিমাচল প্রদেশের মাঝাচ, পালচান, কোঠি, রুয়ার গ্রামের বাসিন্দারাও বিশ্বাস করেন এই ৪২ দিন নীরবতা পালনের বিষয়টি। এছাড়া কিছু গ্রামের বাসিন্দারা চুপ থাকার পাশাপাশি বন্ধ করে দেন তাদের কৃষিকাজও।

চুপ থাকার কারণ হিসেবে গ্রামবাসীরা জানান, মাঘ মাসে মকর সংক্রান্তির সময় থেকে এই রীতি চালু হয়। তাদের বিশ্বাস এসময় দেবতারা স্বর্গ ভ্রমণ করেন। পৃথিবী থেকে কোন শব্দে যেন দেবতাদের ভমণে বিরক্তির কারণ না হয় এজন্য তারা চুপ থাকেন।

গ্রামবাসীরা আরো জানায়, স্বর্গে দেবতারা এসময় গভীর ধ্যানে মগ্ন হয়। পৃথিবী থেকে সৃষ্ট কোন শব্দ যাতে তাদের ধ্যানে বিঘ্ন না ঘটায় তাই তারা চুপ থাকে। দেবতারা বিরক্ত হলে তাদের অমঙ্গল হতে পারে বলে গ্রামবাসীদের বিশ্বাস।

গোশাল গ্রামের এক বাসিন্দা শ্যাম ঠাকুর জানান, তারা অনেক দিন যাবত এই রীতি পালন করে আসছেন। এসময় তারা গান শোনা থেকে শুরু করে টেলিভিশন দেখা ও কৃষিকাজ বন্ধ করে দেন। তিনি আরো জানান, এসময় তাদের এলাকায় কেউ বেরাতে এলেও তাদের চুপ থাকতে হয়।

এছাড়া এসময় ওইসব এলাকার মোবাইল ফোন ‘সাইলেন্ট মুডে’ রাখা হয়।

পিএনএস/আনোয়ার

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech