ফিলিস্তিনি প্রধানমন্ত্রীর গাড়িবহরে হামলাকারী নিহত

  


পিএনএস ডেস্ক: ফিলিস্তিনি প্রধানমন্ত্রী রামি হামাদাল্লাহর গাড়িবহরে সন্দেহভাজন দুই হামলাকারী নিহত হয়েছে। গাজা উপত্যকায় নিরাপত্তা বাহিনীর এক অভিযানে তারা নিহত হয় বলে জানিয়েছে হামাস নেতৃত্বাধীন সরকারের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।

আল জাজিরা জানিয়েছে, বৃহস্পতিবারের ওই অভিযানে হামাসের নিরাপত্তা বাহিনীর দুই সদস্যও নিহত হয়েছে।

গত সপ্তাহে উত্তরাঞ্চলীয় গাজা উপত্যকায় একটি পানি সংশোধনাগার পরিদর্শনে গিয়ে হামলার মুখে পড়ে পশ্চিম তীরভিত্তিক ফিলিস্তিনি সরকারের প্রধানমন্ত্রী রামি হামাদাল্লাহর গাড়িবহর। উত্তরাঞ্চলীয় গাজায় ইসরায়েল নিয়ন্ত্রিত ইরেজ চেকপয়েন্ট পার হওয়ার পরই গাড়িবহরে হামলা হলে কয়েকজন নিরাপত্তাকর্মী আহত হন।

তবে অক্ষত থাকেন প্রধানমন্ত্রী। ফিলিস্তিনি প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাস এই হামলার জন্য হামাসকে দায়ী করেন তবে ফিলিস্তিনি প্রতিরোধ আন্দোলনের সশস্ত্র সংগঠনটি তা অস্বীকার করে। গাজার কর্মকর্তারা বলছেন, ওই হামলার সঙ্গে জড়িত দুই সন্দেহভাজনকে গ্রেপ্তার করতে বৃহস্পতিবার অভিযান চালানো হয়।

তারা জানান, অভিযানের সময় গুরুতর আহত অবস্থায় সন্দেহভাজন হামলাকারী আনাস আবু খৌসা ও তার সহযোগি আবদুল হাদি আল আহসাবকে আটক করা হয়। পরে তারা মারা যান। অভিযানের সময় খৌসা ও আহসাব নিরাপত্তা বাহিনীর সদস্যদের প্রতিরোধের চেষ্টা করলে দুই পক্ষের মধ্যে গুলি বিনিময় হয়। আহত হন নিরাপত্তাবাহিনীর কয়েকজন সদস্য।

প্রধানমন্ত্রীর গাড়িবহরে হামলার পর গাজা উপত্যকা নিয়ন্ত্রণ করা হামাসের সঙ্গে ফিলিস্তিনি কর্তৃপক্ষের সম্পর্কে উত্তেজনা দেখা দেয়। ২০১৭ সালের অক্টোবরে ফিলিস্তিনি কর্তৃপক্ষের নেতৃত্বাধীন দল ফাতাহ ও হামাসের মধ্যে স্বাক্ষরিত চুক্তির আওতায় গাজা ও পশ্চিম তীরে দুই পক্ষ আলাদাভাবে নিয়ন্ত্রণ করে। তবে ওই চুক্তি কখনওই পূর্ণভাবে বাস্তবায়ন হয়নি। ফিলিস্তিনের দুই বড় রাজনৈতিক শক্তির মধ্যে পার্থক্য থাকায় এই চুক্তি বাস্তাবায়ন হয়নি বলে মনে করে আল জাজিরা।

বিশ্লেষকরা বলছেন, হামাদাল্লাহর গাড়িবহরে হামলার লক্ষ্য ছিল ওই চুক্তি বাস্তবায়নকে বিঘ্নিত করা।

পিএনএস/আনোয়ার

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech