ঘূর্ণিঝড় বুলবুল: পশ্চিমবঙ্গে প্রাণ হারালেন ৭ জন

  

পিএনএস ডেস্ক : ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুল’–এর তাণ্ডবে পশ্চিমবঙ্গে সাতজন প্রাণ হারিয়েছেন। কলকাতার আবহাওয়া দপ্তর থেকে আজ রোববার এ তথ্য জানানো হয়।

নিহত ছয়জনের মধ্যে পাঁচজন বসিরহাটে, একজন কলকাতায় ও একজন পূর্ব মেদিনীপুরে মারা গেছেন। বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে, গাছ চাপা পড়ে এবং দেয়াল ধসে পড়ে এই ছয়জনের মৃত্যু হয়েছে।

রাজ্য সচিবালয় সূত্রে জানা গেছে, বুলবুলের তাণ্ডবে পশ্চিমবঙ্গে ৭ হাজার বাড়ি ধসে পড়েছে। গাছ ভেঙেছে ৯ হাজার। মোবাইল ফোনের টাওয়ার ভেঙে পড়েছে ৯৫০টি। ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে প্রচুর ফসলি জমি। কলকাতা-হাওড়ার মধ্যে এখনো ফেরি চলাচল বন্ধ রয়েছে।

এদিকে ঘূর্ণিঝড়ে ক্ষয়ক্ষতি সম্পর্কে খবর নিতে আজ সকালে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। তিনি ঘূর্ণিঝড়ে ক্ষতিগ্রস্ত লোকদের সহায়তার আশ্বাস দেন। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে কথা বলে সাহায্যের আশ্বাস দেন।

আলীপুর আবহাওয়া দপ্তরের পূর্বঘোষণা অনুযায়ী গতকাল শনিবার রাত সাড়ে আটটার দিকে বুলবুল প্রথম আঘাত করে পশ্চিমবঙ্গের সমুদ্র উপকূলবর্তী দক্ষিণ চব্বিশ পরগনার বকখালিতে। তবে সুন্দরবনের কারণে বহু মানুষ ঘূর্ণিঝড়ের ক্ষয়ক্ষতি থেকে রক্ষা পেয়েছে।

আবহাওয়া দপ্তর জানিয়েছে, কলকাতাসহ রাজ্যের সাতটি জেলায় আজ সারা দিনই ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাব থাকবে। দিঘা, মন্দারমণি, তাজপুর, বকখালিসহ অন্যান্য পর্যটনকেন্দ্রে পর্যটকদের ভ্রমণের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে প্রশাসন। বকখালি এবং দিঘায় অনেক পর্যটক আটকে পড়েছেন। আগামীকাল সোমবার সকাল থেকে আবহাওয়া স্বাভাবিক হবে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া দপ্তর।

পিএনএস/জে এ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech