করোনায় আক্রান্ত কে এই বিতর্কিত কণিকা কাপুর?

  


পিএনএস ডেস্ক: তিনি করোনা আক্রান্ত নন, এই দাবি সত্ত্বেও তৃতীয় পরীক্ষাতেও পজিটিভ গায়িকা কণিকা কাপুর। কে এই কণিকা, যাকে নিয়ে সারা ভারতে এখন হইচই চচছে?

কেবল ভারতেই প্রায় ৩৫০ মানুষকে হয়তো তিনি সংক্রামিত করে ফেলেছেন। তিনি ব্রিটেনের যুবরাজ চার্লসের সঙ্গেও দেখা করেছিলেন লন্ডনে থাকার সময়। তার করোনাভাইরাস ধরা পড়েছেই, বাদ যাননি যুবরাজ চার্লসও। ইতিমধ্যে তিনি আবার আরেক কাণ্ড ঘটিয়েছেন। তিনি যে করোনা আক্রান্ত, সেই সম্বন্ধে তার ইনস্টাগর্রাম পোস্টটি তিনি তুলে নিয়েছেন কোনও অজানা কারণে।

কণিকা কাপুরের জন্ম ১৯৭৮ সালের ২১ আগস্ট, লক্ষ্ণৌতে। পড়াশোনা করেছেন লক্ষ্ণৌয়ের লরেটো কনভেন্ট থেকে। ছোটবেলা থেকে গান নিয়ে ক্যারিয়ার তৈরির ইচ্ছে থাকলেও ১৯৯৭ সালে তার বিয়ে হয়ে যায় ব্যবসায়ী রাজ ছন্দকের সঙ্গে। চলে যান লন্ডন। মা হন তিন সন্তানের। ১৫ বছরের বিবাহিত জীবন শেষ হয় ২০১২ সালে। লন্ডন থেকে ফেরেন মুম্বাইয়ে। গায়িকা হওয়ার যে ইচ্ছে ছোটবেলা থেকে লালন করছিলেন, সেটা সম্ভব হয় কি না, যাচাই করতে।

মুম্বইতে বাসা বাঁধার প্রথম বছরেই ব্রেক পান। একটি মিউজিক ভিডিওতে কাজ করার সুযোগ। ‘জুগনি জি’ নামে মিউজিক ভিডিওর সেই ‘বেবি ডল’ গান অবশ্য সেসময় খুবই জনপ্রিয় হয়ে যায়। ফলে প্লেব্যাক সিঙ্গারদের প্রতিযোগিতার আঙিনায় পা রাখেন বেশ মাটি শক্ত করেই। বলিউডে নজর কাড়লেন দু’বছর বাদে, ২০১৪ সালে। চমকদার গায়কির জন্য জনপ্রিয় তো হলেনই, সঙ্গে সমালোচকরাও তাঁর তারিফ করলেন ঢেলে। পেলেন একাধিক পুরস্কার, সেই বছর ‘ফিল্মফেয়ার’র ‘বেস্ট ফিমেল প্লেব্যাক সিঙ্গার’ শিরোপা ঘরে তুললেন।

পরের বছরগুলিতে তাঁর গাওয়া হিন্দি ছবির গানগুলি- ‘রাগিনি এমএমএস’ ছাড়াও ২০১৪ সালেই ‘হ্যাপি নিউ ইয়ার’ ছবির ‘কমলি’ গানটি চার্টবাস্টার হয়েছিল। ২০১৫ সালে ‘এক পহেলি লীলা’ ছবির ‘দেশি লুক’, ‘অল ইজ ওয়েল’ ছবির ‘নাচান পারাঠে’, ‘দিলওয়ালে’ ছবির ‘প্রেমিকা’ পরপর হিট হয়েছে।

সম্প্রতি লন্ডন থেকে ফিরে এসে তিনি অন্তত তিনটি পার্টিতে গিয়েছিলেন বলে কণিকার বাবা মন্তব্য করেছেন। অবশ্য কণিকা এই কথা স্বীকার করেননি। তার নামে পুলিশের কাছে লিখিত অভিযোগ দায়ের হয়েছে। হাসপাতালেও বিতর্ক পিছু ছাড়েনি কণিকার। তিনি নাকি দাবি করেছেন, হাসপাতালেও তাকে তারকাসুলভ সুবিধা দিতে হবে।

কিছুদিন আগে সোনম কাপুর সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি পোস্ট দিয়েছিলেন। সেখানে কণিকার সমর্থনে তিনি বলেছিলেন, কণিকা যখন লন্ডন থেকে ফিরছেন, তখন ভারতে মানুষ হোলি খেলছে। কিন্তু কণিকাকে সমর্থন করায় নেটিজেনরা বিস্তর ক্ষুব্ধ হন সোনমের উপর। মাঝে কণিকার পরিবারের কয়েকজন সদস্য দাবি করেছিলেন, তার করোনাভাইরাস পরীক্ষার রিপোর্টে ‘ভুল’ রয়েছে। কিন্তু তৃতীয়বারের পরীক্ষাতেই কণিকার ‘পজিটিভ’ এসেছে। ফলে বিতর্ক যথারীতি ধাওয়া করছে এই গায়িকাকে।

পিএনএস/আনোয়ার

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন