মেলার ১৯তম দিনে নতুন বই এসেছে ১৪৩টি

  

পিএনএস ডেস্ক : ২০ ফেব্রুয়ারি বৃহস্পতিবার অমর একুশে গ্রন্থমেলার ১৯-তম দিনে নতুন বই এসেছে ১৪৩টি। বিকেল ৪টায় গ্রন্থমেলার মূলমঞ্চে অনুষ্ঠিত হয় আবুল কাসেম রচিত বঙ্গবন্ধু ও চা শিল্প শীর্ষক আলোচনা অনুষ্ঠান।

প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন দীপংকর মোহান্ত। আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন মেসবাহ কামাল ও মোকারম হোসেন। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন অধ্যাপক বিশ্বজিৎ ঘোষ।
প্রাবন্ধিক দীপংকর মোহান্ত বলেন, জাতীয়তাবাদী ও জনমুক্তির নেতা হিসেবে বঙ্গবন্ধুর অন্তরের গহীনে অবহেলিত চা শ্রমিকদের দীর্ঘশ্বাসের স্পন্দন প্রতিধ্বনি হতে শোনা যায় নানাভাবে। ১৯৫৬ সালে চা শ্রমিকদের হাত ধরে তিনি প্রথম বলেছিলেন, ‘তোমাদের সকল দুঃখের খবরই রাখি। এসব দুঃখ দূর করবার জন্য আমরা খুবই চেষ্টা করিব’। আবার বঙ্গবন্ধু পূর্ববঙ্গের শিল্প- উন্নয়নে উদার নীতিমালার অংশ হিসেবে চা শিল্প ও ব্যবস্থাপনার আধুনিকায়নে অল্প সময়ে ব্যাপক পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করেন। তাঁর অবদান যথাযথ মূল্যায়িত হয়েছে গবেষক আবুল কাসেমের বঙ্গবন্ধু ও চা শিল্প গ্রন্থে।

আলোচকবৃন্দ বলেন, চা শিল্প ও বঙ্গবন্ধু গ্রন্থে শ্রমিকদের সঙ্গে জাতীয় নেতা হিসেবে বঙ্গবন্ধুর যে সম্পর্ক তৈরি হয়েছিল সেই প্রেক্ষাপট বিশদভাবে ফুটে উঠেছে। তিনি অবহেলিত চা জনগোষ্ঠীর প্রতি যে দায়িত্বশীল ভ‚মিকা পালন করেছিলেন তা আজ জাতীয় ইতিহাসের গৌরবজনক অংশ।

গ্রন্থের লেখক বলেন, বঙ্গবন্ধুর প্রতি ভালোবাসার নিদর্শন হিসেবে এই বইয়ের ভাবনা। আশা করি, এর মধ্য দিয়ে বঙ্গবন্ধুর জীবনের একটি ব্যতিক্রমী দিক মানুষের কাছে স্পষ্ট হবে।

সভাপতির বক্তব্যে অধ্যাপক বিশ্বজিৎ ঘোষ বলেন, জাতীয় জীবনের প্রতিটি ক্ষেত্রে জড়িয়ে আছেন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু। বাংলাদেশের চা শিল্পের বিকাশে এবং চা শ্রমিকদের জীবনমানোন্নয়নে তাঁর অবদান কখনো বিস্মৃত হওয়ার নয়।

আজ লেখক বলছি অনুষ্ঠানে নিজেদের নতুন বই নিয়ে আলোচনা করেন মাসুদুজ্জামান, রঞ্জনা বিশ্বাস, মাজুল হাসান এবং মঈনুল হাসান। ছড়াপাঠের আসরে ছড়া পাঠ করেন ছড়াকার আখতার হুসেন, ফারুক নওয়াজ, সুজন বড়ুয়া, খালেক বিন-জয়েনউদ্দিন, মাহমুদউল্লাহ এবং সৈয়দ আল ফারুক।

গ্রন্থমেলা উপলক্ষ্যে হুইল চেয়ার হস্তান্তর অমর একুশে গ্রন্থমেলায় শারীরিক সমস্যাগ্রস্থ মানুষের সহজে প্রবেশের সুবিধার্থে বেক্সিমকো ফার্মার পক্ষ থেকে ১৫টি হুইল চেয়ার হস্তান্তর করা হয়েছে। আজ দুপুরে বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক হাবীবুল্লাহ সিরাজীর কাছে বেক্সিমকো ফার্মার পক্ষে হুইল চেয়ারসমূহ হস্তান্তর করেন ডা. মোহাইমিনুল ইসলাম কৌশিক। এ সময় অমর একুশে গ্রন্থমেলা ২০২০-এর সদস্য সচিব ড. জালাল আহমেদ এবং গ্রন্থমেলা পরিচালনা কমিটির সদস্য সুভাষ সিংহ রায় উপস্থিত ছিলেন।
অমর একুশের অনুষ্ঠানসূচি:

আগামীকাল ২১ ফেব্রুয়ারি শুক্রবার, শহিদ দিবস এবং আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস। রাত সাড়ে ১২টায় কেন্দ্রীয় শহিদ মিনারে বাংলা একাডেমির পক্ষ থেকে শ্রদ্ধাঞ্জলি নিবেদন করে দিনের কর্মসূচি শুরু হবে। সকাল সাড়ে ৭টায় গ্রন্থমেলার মূল মঞ্চে অনুষ্ঠিত হবে স্বরচিত কবিতা পাঠের আসর। সভাপতিত্ব করবেন কবি রুবী রহমান। বিকাল ৪টায় অনুষ্ঠিত হবে অমর একুশে বক্তৃতা ২০২০। অনুষ্ঠানে স্বাগত ভাষণ প্রদান করবেন বাংলা একাডেমির মহাপরিচালক হাবীবুল্লাহ সিরাজী।

বঙ্গবন্ধু, বঙ্গবন্ধুর বাংলাদেশ ও সাম্প্রতিক উন্নয়ন প্রসঙ্গ শীর্ষক একুশে বক্তৃতা প্রদান করবেন অধ্যাপক নজরুল ইসলাম। সভাপতিত্ব করবেন বাংলা একাডেমির সভাপতি জাতীয় অধ্যাপক আনিসুজ্জামান। আগামীকাল অমর একুশে গ্রন্থমেলার ২০তম দিন। মেলা চলবে সকাল ৮টা থেকে রাত সাড়ে ৮টা পর্যন্ত। আগামীকাল সকাল ১১টা থেকে দুপুর ১টা পর্যন্ত গ্রন্থমেলায় থাকবে শিশুপ্রহর। সন্ধ্যায় রয়েছে কবিকণ্ঠে কবিতাপাঠ, আবৃত্তি এবং সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।

পিএনএস/মো: শ্যামল ইসলাম রাসেল

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন