অবশেষে বেফাঁস মন্তব্যের জন্য ক্ষমা চাইলেন কাজী হায়াৎ

  

পিএনএস ডেস্ক :গুনী চলচ্চিত্র নির্মাতা, প্রযোজক কাজী হায়াৎ। দীর্ঘ দিনের ক্যারিয়ারে ‘দাঙ্গা’, ‘ইতিহাস’, ‘অন্ধকার’সহ অর্ধশত সিনেমা দর্শকদের উপহার দিয়েছেন তিনি। কাজের সম্মাননা হিসেবে পেয়েছেন আটবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার। সম্প্রতি তিনি তার ক্যারিয়ারের পঞ্চাশ তম চলচ্চিত্র নির্মান করছেন সুপারস্টার শাকিব খানকে নিয়ে।যা গত শুক্রবার সারা দেশের ৮০টি হলে মুক্তি পেয়েছে।

এদিকে, কিছুদিন আগে মেকআপম্যান ও স্টিল ফটোগ্রাফারদের ‘চামচা’ বলে মন্তব্য করে রোষাণলে পড়েন প্রবীণ নির্মাতা কাজী হায়াৎ। অবশেষে নিজের ভুল বুঝতে পেরে ক্ষমা চাইলেন এই নির্মাতা।

সম্প্রতি এক অনুষ্ঠানে চোখে জল নিয়ে ক্ষমা প্রার্থনা করে কাজী হায়াৎ বলেন, কিছুদিন আগে মেকআপম্যান ও আলোকচিত্রীদের নিয়ে একটি বক্তব্য করেছিলাম। যে কারণে এই দুই সমিতির সদস্যরা কষ্ট পেয়েছেন। আমি আপনাদের কাছে ক্ষমা প্রার্থনা করছি। আপনারা আমাকে ক্ষমা করে দেবেন। আমি আপনাদের কাছে হাতজোড় করে ক্ষমা চাইছি। তবে আপনাদের কাছে আমার অনুরোধ, আপনাদের মধ্যে যাদের এসব সমস্যা রয়েছে, তারা নিজেদের শুধরে নেবেন।

প্রসঙ্গত, এর আগে এক ভিডিও বার্তায় কাজী হায়াৎ বলেছিলেন, ‘আমাদের বাংলা চলচ্চিত্র শিল্পের দুটি ডিপার্টমেন্ট ‘মেকআপম্যান’ ও ‘স্টিল ফটোগ্রাফার’। এদের যারা প্রধান থাকেন তারা সাধারণত নায়ক-নায়িকা, প্রযোজকদের মোসাহেবি করেন, বাংলা কথায় চামচামি করেন। যদিও ‘চামচামি’ বলার জন্য অনেকে আমার ওপর রাগ করতে পারেন। তাদের তো বিবেক আছে, ব্যক্তিত্ব আছে। তাদের ব্যক্তিত্বে আঘাত লাগে না চামচামি করতে? আমার পক্ষ থেকে আমি বলব, আমার বয়স ৭৩। ৫০তম সিনেমার কাজ চলছে। এখনই তো আমার বলার সময়। আমি ছাড়া বলার আর কেউ নেই।

কাজী হায়াৎয়ের এমন মন্তব্যে চটে ছিলেন মেকআপম্যান ও স্টিল ফটোগ্রাফারদের অনেকেই। তারা ফেসবুকে প্রসঙ্গটি নিয়ে সমালোচনা করেন।পরে বিষয়টি নিয়ে ফটোগ্রাফার সমিতি থেকে পরিচালক সমিতিতে লিখিত অভিযোগ করেন। তারই পরিপ্রেক্ষিতে পরিচালক সমিতি এই মন্তব্যের ব্যাখ্যা চেয়ে কাজী হায়াৎকে চিঠি দেয়া হয়েছিলো।

পিএনএস/এএ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন