অভিনেত্রী শবনম ফারিয়ার জিডি

  


পিএনএস ডেস্ক: ছোট পর্দার জনপ্রিয় তারকা ও ‘কে হবে মাসুদ রানা’ প্রতিযোগিতার বিচারক শবনম ফারিয়া নিরাপত্তাহীনতার অভিযোগ করে জিডি করেছেন। মঙ্গলবার রাজধানীর পল্টন মডেল থানায় তিনি জিডি করেন।

জিডিতে তিনি অভিযোগ করেন, সপ্তাহখানেক ধরে তার ফেসবুক পেজে বিভিন্ন জন আপত্তিকর মন্তব্য করছেন। একজন ফেসবুকে শবনম ফারিয়ার ফোন নম্বর দিয়ে দেন। এ কারণে বহু অপরিচিত ব্যক্তি তাকে ফোনে বিরক্ত করছেন। নিজের প্রয়োজনীয় ফোন কলও তিনি রিসিভ করতে পারছেন না। কয়েকটি ফেসবুক আইডি থেকে তার নামে মিথ্যা প্রচারণা চালানো হচ্ছে। তিনি জানান, ইতোমধ্যে তিনি পুলিশের সাইবার ক্রাইম ইউনিটে এ বিষয়ে অভিযোগ করেছেন। আগামী রোববার তিনি আদালতে যাবেন। শবনম ফারিয়া নিজের ফেসবুক পেজ বন্ধ করে রেখেছেন।

শবনম ফারিয়া জানান, তিনি ‘ফেয়ার অ্যান্ড লাভলী মেনস হিরো- কে হবে মাসুদ রানা’ প্রতিযোগিতার প্রাথমিক রাউন্ডের বিচারক ছিলেন। তার সাথে আরো ছিলেন শাফায়েত হোসেন রানা, ইফতেখার আহমেদ ফাহমি, মুহাম্মদ মোস্তফা কামাল রাজ, জাকিয়া বারি মম প্রমুখ। এই প্রতিযোগিতায় অংশ নেয়ার জন্য অসংখ্য ব্যক্তি নিবন্ধন করেছেন। এর মধ্য থেকে তারা প্রথম দিন ৮০০ জন এবং দ্বিতীয় দিন ৩০ জনকে প্রতিযোগিতার মূল রাউন্ডের জন্য বাছাই করেন।

শবনম ফারিয়া আরো জানান, প্রায় ৯ মাস আগে তারা ‘ফেয়ার অ্যান্ড লাভলী মেনস হিরো- কে হবে মাসুদ রানা’ প্রতিযোগিতার প্রাথমিক বাছাইয়ের কাজ করেছেন। এখন চ্যানেল আইয়ে প্রতিযোগিতার বিভিন্ন রাউন্ড প্রচার হচ্ছে।

এ দিকে ‘ফেয়ার অ্যান্ড লাভলী মেনস হিরো- কে হবে মাসুদ রানা’ প্রতিযোগিতার প্রাথমিক বাছাইপর্বের কিছু ভিডিও ভাইরাল হয়েছে। তাতে প্রতিযোগীদের সাথে বিচারকদের আপত্তিকর ব্যবহার ও মন্তব্য খুবই সমালোচিত হয়। এ ব্যাপারে শবনম ফারিয়া বলেন, ‘যেসব ভিডিও সবাই দেখছেন, এগুলো এই প্রতিযোগিতার বিভিন্ন সময়ের। এর মধ্য দিয়ে প্রতিযোগীদের মানসিক অবস্থা, পরিস্থিতি সামলানোর ক্ষমতা দেখা হয়েছে। কেউ একজন প্যানেল থেকে এসব ফুটেজ নিয়ে ফেসবুকে ছেড়ে দিয়েছে।’

পিএনএস/আনোয়ার

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech