আমির খানের সঙ্গে অভিনয়ের প্রস্তাব পেয়েছিলেন মৌসুমী!

  

পিএনএস ডেস্ক : মৌসুমী। পুরো নাম, আরিফা পারভিন জামান মৌসুমী। বাংলাদেশের চলচ্চিত্র জগতের জনপ্রিয় অভিনেত্রীদের একজন এই প্রিয়দর্শীনী। ঢাকাই সিনেমায় যাত্রা শুরু ‘কেয়ামত থেকে কেয়ামত’ ছবিতে চিত্রনায়ক সালমান শাহ এর বিপরীতে অভিনয় দিয়ে। ১৯৯৩ সালে ছবিটি মুক্তির পর সুপার-ডুপার হিট হয়। এক ছবি দিয়েই মৌসুমী রাতারাতি তারকা বনে যান। এরপরেই মৌসুমীর কাছে বলিউডের ছবিতে অভিনয়ের প্রস্তাব পান মৌসুমী!

এবার নিজের ক্যারিয়ারে বলিউড থেকে প্রস্তাব পাওয়ার চমকপ্রদ তথ্য জানালেন এই অভিনেত্রী। যেখানে মৌসুমীর বিপরীতে ছবির নায়ক হওয়ার কথা ছিল ‘মিস্টার পারফেকশনিস্ট’ খ্যাত আমির খানের। মাছরাঙা টেলিভিশনের ‘স্টার নাইট’ নামে অতিথি হিসেবে উপস্থিত হয়ে মৌসুমী বলেন, ১৯৯৪-৯৫ সালের দিকে আমাকে বলিউড থেকে ছবি করার প্রস্তাব দেয়া হয়েছিল।

ওই ছবির নায়ক থাকবেন আমির খান। শুধু তাই নয়, কথা হয়েছিল বলিউডের আরেক ছবিতে মিঠুন চক্রবর্তীর সঙ্গে কাজ করার। কিন্তু ব্যাটে বলে না মেলায় পরে ছবিগুলোতে কাজ করা হয়নি।

‘স্টার নাইট’-এ মৌসুমী আরও জানান, সমাজের স্বার্থে, দেশের স্বার্থে উপকার হয় এমন যে কোনো কাজে তাকে আমন্ত্রণ জানানো হলে তিনি সেখানে যুক্ত হতে চান। তবে সক্রিয় রাজনীতিতে সহসাই জড়িয়ে পড়ার কোনো ইচ্ছা তার নেই।

মৌসুমীকে নিয়ে প্রাণবন্তভাবে অনুষ্ঠানটি উপস্থাপনা করেন জনপ্রিয় সঞ্চালিকা মারিয়া নূর। আলাপচারিতায় মৌসুমী জানান, শাবনূর আর তার মধ্যে শাবনূর সবচেয়ে বেশি জনপ্রিয়। এমনকি নিজের স্বামী ওমর সানির চেয়ে জনপ্রিয়তার দৌড়ে প্রয়াত সালমান শাহকে এগিয়ে রাখেন মৌসুমী।

যদিও স্বামী ওমরসানিকে জীবনে চলার পথে সবচেয়ে বড় অবলম্বন, সবচেয়ে বড় বন্ধু বলে দাবী করেন তিনবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার প্রাপ্ত এই নায়িকা। স্টার নাইট অনুষ্ঠানের শেষ পর্যায়ে চলচ্চিত্র ক্যারিয়ারের রজত জয়ন্তী (২৫ বছর) উদযাপনের কেক কাটেন মৌসুমী।

২৫ বছর কিংবা তার-ও আগে মডেলিং সময়কার বিভিন্ন তথ্য, ছবি, ভিডিওচিত্র দিয়ে মৌসুমীকে সারপ্রাইজ দেয় ‘স্টার নাইট’ টিম। এসব দেখে মৌসুমীর চোখ ভিজে যায়। রুম্মান রশীদ খান এর গ্রন্থনা ও পরিকল্পনায় ‘স্টার নাইট’ প্রযোজনা করেছেন অজয় পোদ্দার। অনুষ্ঠানটি মাছরাঙা টেলিভিশনে প্রচারিত হবে আসছে ঈদের দিন, রাত ৮টায়।

পিএনএস/জে এ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech