ক্যান্টিন মালিককে ‘পঁচা’ মাংস খাওয়ালো ঢাবি শিক্ষার্থীরা

  

পিএনএস, ঢাবি প্রতিনিধি : ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কবি জসিম উদ্দীন হলে খাবার নষ্ট হয়ে যাওয়ার পরেও সেই ‘পঁচা’ খাবার শিক্ষার্থীদের কাছে পরিবেশন করা হয়। পরে খেতে গিয়ে খাবার ‘পঁচা’ লাগায় সেই মাংস জোর করে খাওয়ানো হয় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কবি জসিম উদ্দীন হলের ক্যান্টিন মালিককে।

মঙ্গলবার রাত ১০টার দিকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ (ডাকসু) সদস্য তানভীর হাসান সৈকতের নেতৃত্বে হলের ক্যান্টিনে এই ঘটনা ঘটে। এসময় হল সংসদের ভিপি (সহ-সভাপতি) ফরহাদ আলী, ক্যান্টিন দেখভালের দায়িত্বপ্রাপ্ত হাউজ টিউটর মাহাম্মদ জহিরুল ইসলামসহ হলের কয়েকজন আবাসিক শিক্ষার্থী উপস্থিত ছিলেন।

এ বিষয়ে বুধবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদ ডাকসুর সদস্য তানভীর হাসান সৈকত বলেন, মঙ্গলবার রাত ১০টার দিকে হলের ক্যান্টিনে খাবার খেতে গেলে খাবারে লবণের পরিমাণ বেশি পাই এবং মাংস ‘পঁচা’ পাওয়া যায়। পরে শিক্ষার্থীদের অভিযোগের মুখে ক্যান্টিন মালিক ডালিম সরকারকে ডেকে এনে খাবার খেতে বললে তিনি তা খেতে অস্বীকৃতি জানায়। পরে তাকে খেতে বাধ্য করি।

ঘটনার বিস্তারিত তুলে ধরে তিনি আরও বলেন, রাতে যখন হল ক্যান্টিনে খাবার খেতে গেলাম তখন ছাত্রদের জন্য রান্না করা গরুর মাংস মুখে দিতেই বমি বমি অবস্থা। মাংস পঁচে যাওয়ায় ক্যান্টিন মালিক এই পঁচা মাংসে লবণ বাড়িয়ে রান্না করে শিক্ষার্থীদের খাওয়াচ্ছে। এরপর আমি এর প্রতিবাদ করতে গেলে ক্যান্টিনে খাচ্ছেন এমন অনেক শিক্ষার্থীই প্রতিবাদ জানায়। তারা এটাও অভিযোগ করে যে, ক্যান্টিন মালিক মাঝে মাঝেই এই ধরনের পচা খাবার খাওয়াচ্ছে।

সৈকত বলেন, এরপর আমি ক্যান্টিনের দায়িত্বে থাকা স্যারকে আসার জন্য অনুরোধ করলে তিনি আসেন। আমি ক্যান্টিন ম্যানেজারকে ওই মাংস খেতে বলি। এরপর তিনিও মুখে নিয়ে বমি করে দেন। স্যারকে খেতে বললে তিনিও মুখে নিতে পারেননি। পরে ম্যানেজারের মাধ্যমে ক্যান্টিন মালিককে ফোন করে আসতে বলি।

ঘটনাস্থলে উপস্থিত হলের আবাসিক শিক্ষার্থী মিজানুর রহমান শান্ত বলেন, মাঝে মাঝেই ক্যান্টিনে পঁচা খাবার পাওয়া যায়। মাছে গন্ধ, মাংস পঁচা, তরকারিতে লবণ কম অথবা বেশি দেয়। বারবার বলেও এর প্রতিকার পাওয়া যায়নি বলেও অভিযোগ করেন এই শিক্ষার্থী।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে কবি জসিম উদ্দিন হলের আবাসিক শিক্ষক ড. মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম বলেন, মাংস পঁচা ছিল না। লবণ একটু বেশি হয়েছে। তবে, সেটা কেন হয়েছে আমরা তদন্ত করে দেখবো। এ ব্যাপারে ক্যানটিন মালিককে একটি শোক’জ নোটিশও দেওয়া হয়েছে।’

পিএনএস-জে এ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন