বেনাপোল বন্দরে আমদানি-রপ্তানি বন্ধ

  

পিএনএস ডেস্ক : ভারতে বাংলাদেশী পণ্য রপ্তানির দাবিতে বেনাপোল বন্দরে বুধবার সকাল থেকে ভারত বাংলাদেশ দুদেশের মধ্যে সকল প্রকার বাণিজ্য বন্ধ রয়েছে। বেনাপোল সিএন্ডএফ এজেন্ট স্টাফ এ্যাসোসিয়েশন বুধবার সকাল থেকে বাংলাদেশ থেকে ভারতে রপ্তানি পণ্য প্রবেশে বাধা দেওয়ায় ভারত থেকে বাংলাদেশে আমদানীকৃত সকল পণ্যের আমদানী কার্যক্রম অনির্দিষ্টকালের জন্য বন্ধ রেখেছে। ভারতীয় কর্তৃপক্ষ বাংলাদেশি রপ্তানকিৃত পন্য গ্রহণ না করা পর্যন্ত অনির্দিষ্টকালের জন্য এ পথে আমদানি বাণিজ্য বন্ধ থাকবে বলে স্টাফ এসোসিয়েশনের নেতারা জানিয়েছেন।

নানা দেন-দরবার শেষে কোভিড-১৯ সংক্রমণের কারণে বন্ধ থাকা আমদানি-রফতানি কার্যক্রম চালু করতে সম্প্রতি ভারত ও বাংলাদেশের স্থলবন্দরগুলো খুলে দেয়া হয়। কিন্তু ভারত থেকে বাংলাদেশে পণ্য প্রবেশ স্বাভাবিক থাকলেও বাংলাদেশ থেকে ভারতের পেট্রাপোল বন্দরে ট্রাক ঢুকতে দিচ্ছিল না ভারত। বিষয়টি দুদেশের মধ্যকার চুক্তির লঙ্ঘণ হিসেবে দেখছেন বন্দর ব্যবহারকারী বিভিন্ন সংগঠনের নেতারা।

বেনাপোল সিএন্ডএফ এজেন্ট স্টাফ এ্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক সাজেদুর রহমান জানান, ৭ জুন থেকে বেনাপোল বন্দরে পুনরায় আমদানি কার্যকর হলেও ভারত বাংলাদেশ থেকে কোন পণ্য আমদানি করছে না। ফলে ভারতের সাথে আমাদের ব্যাপক বাণিজ্য ঘাটতি বেড়ে যাচ্ছে। গত ২৪ দিনে বেনাপোল দিয়ে রেল ও সড়ক পথে প্রায় ৬০ হাজার মেট্রিক টন পণ্যের আমদানি হলেও বাংলাদেশ থেকে এক ট্রাক বাংলাদেশি পণ্যও ভারতে রপ্তানি হয়নি। আমরা বাংলাদেশি রপ্তানিকারকদের কথা চিন্তা করে বেনাপোল বন্দরের সাথে ভারতের পেট্রাপোল বন্দরের আমদানি বাণিজ্য বন্ধ করে দিয়েছি। ভারতীয় কর্তৃপক্ষ রপ্তানিকৃত পণ্যবাহী ট্রাক গ্রহণ করলে দু’দেশের মধ্যে পুনারায় আমদানি বাণিজ্য শুরু হবে।

বেনাপোল স্থলবন্দরের উপ-পরিচালক মামুন কবীর তরফদার ভারত থেকে পণ্য আমদানির বন্ধ থাকার বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, দু’দেশের মধ্যে আমদানি বাণিজ্য বন্ধ থাকলেও বেনাপোল বন্দরে পণ্য ওঠা নামাসহ বন্দরের কার্যক্রম স্বাভাবিক আছে।

পিএনএস/এসআইআর

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন