নড়িয়ায় প্রধানমন্ত্রীর প্রতিশ্রুত অগ্রাধিকার পাউবো’র প্রকল্প বাস্তবায়নে প্রতিবন্ধকতা- পাউবো এবং আইডব্লিউএম-এর মধ্যে সমন্বয়হীনতা-

  


পিএনএস (মো: শাহাবুদ্দিন শিকদার) : শরীয়তপুরের নড়িয়ায় মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর প্রতিশ্রুত অগ্রাধিকার প্রকল্প বাস্তবায়নে পাউবো এবং আইডব্লিউএম-এর মধ্যে সমন্বয়হীনতা দেখা দিয়েছে। ফলে “শরীয়তপুর জেলার জাজিরা ও নড়িয়া উপজেলায় পদ্মা নদীর ডান তীর রক্ষা” শীর্ষক প্রকল্প বাস্তবায়নে প্রতিবন্ধকতা দেখা দিয়েছে। এভাবে চলতে থাকলে প্রকল্পের বাস্তবায়নকারী ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান দেশপ্রেমিক নৌবাহিনীর নেতৃত্বাধীন খুলনা শীপইয়ার্ড লিমিটেড আর্থিক ও কারিগরী ক্ষতির সম্মুখীন হবে যাতে করে প্রকল্প বাস্তবায়নে বড় ধরণের বিঘ্ন সৃষ্টি হতে পারে।

সরেজমিনে প্রকল্প এলাকা পর্যালোচনা চালিয়ে দেখা গেছে, নড়িয়া প্রকল্পে খুলনা শীপইয়ার্ড লিমিটেড ড্রেজিং কাজ সম্পাদনের পর ত্রিপাক্ষিক Post Work Survey করলেও আইডব্লিউএম Post Work Survey যথাসময়ে করে না। কোন কোন ক্ষেত্রে আইডব্লিউএম ৪০ দিন পরেও Post Work Survey করে। এতে করে স্রোতবহুল পদ্মা নদীর ড্রেজিং স্থলে ব্যাপক পলি পতিত হওয়ার কারণে কোনক্রমেই যথাযথভাবে কাজের পরিমাপ করা যায় না যা ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানের সাথে ইচ্ছাকৃত অবিচারের শামিল। এ ধরনের কার্যকলাপ সম্পাদিত ঠিকাদারী চুক্তি পরিপন্থী এবং LD আরোপযোগ্য।

পর্যবেক্ষকমহল মনে করেন, নড়িয়ার ড্রেজিং কাজ যথাযথ বাস্তবায়নের স্বার্থে পাউবো, ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান, টাস্কফোর্স এবং আইডব্লিউএম এর একই সাথে Post Work সম্পাদন করা প্রয়োজন। পাশাপাশি এরকম সংবেদনশীল ড্রেজিং কাজের Post Work Survey যাতে ড্রেজিং সম্পন্ন করার তৃতীয় দিবসের মধ্যে সম্পাদিত হয় সে ব্যাপারেও মনিটরিং জোরদার করা যেতে পারে। পর্যালোচনা চালিয়ে দেখা গেছে, নড়িয়ায় পাউবো’র প্রকল্প বাস্তবায়নে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী অত্যন্ত আন্তরিক। পানি সম্পদ উপমন্ত্রী তো এই প্রকল্পের ব্যাপারে সারাক্ষণই তৎপর থাকেন। পানি সম্পদ প্রতিমন্ত্রী এবং পানি সম্পদ সচিবও অগ্রাধিকার ভিত্তিতে প্রকল্পের খোঁজ-খবর রাখেন। এতো কিছুর পরেও Post Work Survey করতে কেন বিলম্ব হয় তা সংশ্লিষ্ট সকলেরই প্রশ্ন।

এ ব্যাপারে পানি সম্পদ মন্ত্রণালয় প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করতে পারে। অভিজ্ঞমহল এ ব্যাপারে পানি সম্পদ মন্ত্রণালয়ের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন