নদী বাঁচাতে এবং ডেল্টা প্ল্যান বাস্তবায়নে আরো ৬০০ ড্রেজার কেনা অত্যাবশ্যক

  


পিএনএস (মো: শাহাবুদ্দিন শিকদার) : দেশের মৃতপ্রায় নদী-খাল-বিল বাঁচাতে তথা ডেল্টা প্ল্যান বাস্তবায়নে কমপক্ষে ৬০০ ড্রেজার সংগ্রহ করা অত্যাবশ্যক। বর্তমান সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এ ব্যাপারে বারবার বিভিন্ন সময় নির্দেশনা দিলেও বিভিন্ন বাস্তব কারণেই এই পরিমাণ ড্রেজার ক্রয় বা সংগ্রহ করা বিলম্বিত হচ্ছে। বর্তমানে বেসরকারী পর্যায়ে মোটামুটি ১১০টি ড্রেজার, বিআইডব্লিউটিএ’র ৩৫টি ড্রেজার এবং পাউবো’র ড্রেজার পরিদপ্তরের ১১টি ড্রেজার সচল রয়েছে। এই ড্রেজার সংখ্যা প্রয়োজনের তুলনায় একেবারেই অপ্রতুল। দেশের নদী-খাল বাঁচাতে এখন পর্যন্ত বিভিন্ন পদ্ধতির টেন্ডারের মাধ্যমে ড্রেজিং কাজ চালিয়ে নেয়া হচ্ছে। কিন্তু বিদ্যমান নৌপথের সংরক্ষণ বা রক্ষণাবেক্ষণ এবং মৃতপ্রায় নৌপথ পুনরুদ্ধারের পাশাপাশি মৃতপ্রায় নদীগুলোকে বাঁচাতে বিআইডব্লিউটিএ এবং পানি উন্নয়ন বোর্ডকে আরো বেশী ড্রেজার সংগ্রহের প্রকল্প বাস্তবায়ন করতে হবে। উল্লেখ করা যেতে পারে যে, বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ডের ড্রেজার পরিদপ্তরকে এক্সপেরিমেন্টাল গিনিপিগ বানিয়ে অপারেশনের টেবিলেই হত্যা করছে সংশ্লিষ্ট মহল। গৃহীত প্রকল্পের সময় বারবার বৃদ্ধি করেও পাউবোর ড্রেজার পরিদপ্তর ড্রেজার সংগ্রহ করতে পারছে না। অপরদিকে পাউবোর ড্রেজার পরিদপ্তরের খাতা-পত্রে ৩৫টি ড্রেজারের কথা উল্লেখ থাকলেও ১৮টি ড্রেজার একেবারেই অচল, ১৭টি ড্রেজার সচল হলেও ড্রেজিং চালাতে সক্ষম মাত্র ১১/১২টি ড্রেজার। দীর্ঘদিন নানা অব্যবস্থাপনার কারণে পাউবোর ড্রেজার পরিদপ্তর ডুবতে বসেছে। অথচ ডেল্টা প্ল্যান বাস্তবায়নে অনতিবিলম্বে ড্রেজার ক্রয় বা সংগ্রহের কোন বিকল্প নেই। তবে সুখের কথা এই যে, সম্প্রতি পানি সম্পদ মন্ত্রণালয় এ ব্যাপারে নড়েচড়ে বসেছে এবং গত এক মাসে ড্রেজার পরিদপ্তরে অন্তঃত আবার লোকজনের আগাগোনা বৃদ্ধি পেয়েছে। পাউবো’র ড্রেজার পরিদপ্তরের সকল পর্যায়ে কর্মকর্তা-কর্মচারী আবার নারায়ণগঞ্জের অফিসটিতে কাজকর্ম করছেন। সহসাই এখানে ড্রেজার সংগ্রহের প্রকল্প বাস্তবায়নের চেষ্টা চলছে। যদিও পাউবো’র ড্রেজার পরিদপ্তর বিগত পাঁচ বৎসরে ভুতুরে অফিসে পরিণত হয়েছিল। তবে নৌ-পরিবহন মন্ত্রণালয়ের বিআইডব্লিউটিএ ড্রেজার ক্রয় বা সংগ্রহে অনেক এগিয়ে রয়েছে। বর্তমান সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার যুগান্তকারী নির্দেশনা ও আনুকূল্যের কারণে বিআইডব্লিউটিএ ইতিমধ্যে অনেকগুলো উন্নতমানের ড্রেজার সংগ্রহ করেছে যা মৃতপ্রায় নদী বাঁচাতে এবং ডেল্টা প্ল্যান বাস্তবায়নে আশাব্যঞ্জক ভূমিকা রাখছে। মাননীয় প্রধামন্ত্রীর স্বপ্ন বাঁচাতে বিআইডব্লিউটিএ আরো ড্রেজার সংগ্রহের প্রকল্প বাস্তবায়নে কাজ চালিয়ে যাচ্ছে।

ইতিমধ্যে এই সংক্রান্ত দরপত্র বাস্তবায়ন প্রক্রিয়া চলমান রয়েছে। এই ড্রেজারগুলো ক্রয় সম্পন্ন করা গেলে নৌপথের নাব্যতা পুনরুদ্ধার করা সম্ভব হবে। গৃহীত প্রকল্প বাস্তবায়ন সম্পন্ন হলে আগামী অর্থ বৎসর শেষে বিআইডব্লিউটিএ’র ড্রেজার সংখ্যা ৮০/৮৫ তে দাঁড়াতে পারে।

অভিজ্ঞমহল মনে করেন, বিদ্যমান নৌপথ রক্ষণাবেক্ষণে এবং নদী বাঁচাতে ড্রেজিং এর বিকল্প নেই। আর ড্রেজিং কাজ চলমান রাখতে হলে ড্রেজার ক্রয় করতেই হবে। বর্তমান সরকার সেদিকেই এগিয়ে যাচ্ছে।

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন