চিত্র-বিচিত্র

মশার এক কামড়েই ১৪ কেজির মাংসপিণ্ড!

  

পিএনএস ডেস্ক: ৪৬ বছর বয়সি সাইদালাভি। ভারতের কেরালার ত্রিচূড় জেলার বাসিন্দা বাঁ পায়ে ১৪ কেজির মাংসপিণ্ড নিয়ে ঘুরছিলেন। প্রায় বস্তার মতো এই বিশাল মাংসপিণ্ড উরু থেকেই ঝুলছিল।প্রায় তিন দশক ধরে লিম্ফ্যাটিক ফাইলেরিয়াসিস-এ আক্রান্ত সাইদালাভি। এর আগে অপারেশন করা হলেও, তাতে কাজ হয়নি। পায়ের ফোলা অংশ বেড়েই যায়। মশার কামড়েই এই সংক্রমণ হয়ে থাকে সাধারণত।বাড়িতে মা ও দুই ভাইয়ের সাহায্যে অতি কষ্টে এদিক থেকে ওদিকে হাঁটাচলা করতেন বটে, কিন্তু এই মাংসপিণ্ড তাকে ভুগিয়েছে প্রতিদিন। বহু ডাক্তারের

চীনে কুকুরের জন্য এতো আয়োজন!

  

পিএনএস ডেস্ক: যদিও জন্তু জানোয়ারের প্রতি সদয় দেশ নয় বলে চীনের বদনাম আছে।কিন্তু সাম্প্রতিক বছরগুলোতে প্রাণীর যত্ন আত্তিতে দেশটির নাগরিকেরা প্রচুর অর্থ ব্যয় করছেন। যেমন ধরুন দেশটিতে এখন কুকুরের জন্য পাঁচ তারা হোটেলও আছে, যেখানে কুকুরের জন্য সিনেমা হল, সুইমিং পুল এবং থাকার জন্য বিলাসবহুল কামরাও রয়েছে।বিবিসি'র সংবাদদাতা দেখেছেন কুকুরের জন্য নির্মিত চীনের একটি পাঁচ তারা হোটেলের মিনি থিয়েটারে দেখানো হচ্ছে, কুকুর নিয়ে তৈরি সিনেমা। দর্শক অল্প কয়েকটি কুকুর এবং তাদের

একটি গাছে ৯টি সবুজ কপি

  

পিএনএস, বালিয়াকান্দি (রাজবাড়ী): একটি গাছে নয়টি কপি ধরেছে। এ খবর এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে কপিগাছটি দেখতে প্রতিদিনই ভিড় করছে উৎসুক জনতা। ঘটনাটি ঘটেছে রাজবাড়ীর বালিয়াকান্দি উপজেলার নারুয়া ইউনিয়নের খাটিয়াগাড়া গ্রামের শমসের আলীর ক্ষেতে।তিনি জানান, পেঁয়াজের বীজ বপন করার পর ওই ক্ষেতের মধ্যেই একটি কপিগাছ জন্ম নেয়। ধীরে ধীরে বড় হতে থাকে। এরপর সেই গাছে নয়টি সবুজ রঙের ফুলকপি ধরে। কপিগুলো ধীরে ধীরে বড় হচ্ছে। একটি গাছে নয়টি কপি ধরার খবর এলাকায় ছড়িয়ে পড়েছে। কপিগাছটি দেখতে এখন অনেকেই সেখানে

বাইকে তরুণীর কেরামতি দেখলে পিলে কাঁপবে!

  

পিএনএস ডেস্ক: সামনের চাকা শূন্যে আর পেছনেরটা মাটি ঘেঁষা! এভাবেই এগিয়ে চলেছে একটা আস্ত বাইক। এক চাকার উপর ভর করেই চলছে হরেক রকম কেরামতি। কখনও বাইকের হাতল ধরে পাহাড়ে ওঠার ঢঙে হামাগুঁড়ি দিয়ে বাইকের হেডলাইটের কাছে পৌঁছে যাচ্ছেন, আবার কখনও সিটের উপর এক পা রেখে অন্য পা শূন্যে উড়িয়ে দিচ্ছেন।কেরামতি দেখলে মনে হবে শূন্যে পা ভাসিয়ে এ যেন নতুন টাইটানিক সিকোয়েন্স তৈরির চেষ্টা চলছে। বিস্ময়ে ভ্রু কুচকালেও এমন রাইডারের সাহস অবশ্যই তারিফ কুড়ানোর মতো। ‘রিং মাস্টার’ এ চালকের হাতে যেন

চুমু? তাও নাকি ১৫ প্রকার!

  

পিএনএস ডেস্ক: জীবনের অত্যন্ত মধুর এক অভিজ্ঞতা হল চুমু। তার আগে দেখে নিন কত রকমের চুমু হয় পৃথিবীতে। ফ্রেঞ্চ কিস: ঠোঁটের অন্দরে অন্দরে কথা হয় এই চুমুতে। জিভ ছুঁয়ে যায় মুখের ভিতরের জমি। এমন নামকরণের কারণ, বিশ শতকের গোড়ায় ফ্রান্সে এই ধরনের চুমু খাওয়া শুরু হয়েছিল। ফরাসিরা বরাবরই যৌনতায় নতুন ধরনের এক্সপেরিমেন্ট করতে ভালবাসে। সেখান থেকেই এই চুমু আর তার নামের উৎপত্তি। এস্কিমো কিস: নাকে নাক ঘষে আলতো আদর। এই হল এস্কিমো কিস। প্রথম এই বিষয়টি সকলের নজরে পড়ে এস্কিমোদের জীবন নিয়ে ১৯২২ সালে তোলা

ভিন্ন ভাষায় কীভাবে বলবেন ‘তোমায় ভালোবাসি’

  

পিএনএস ডেস্ক:বিখ্যাত কথাসাহিত্যিক হুমায়ুন আহমেদ যথার্থই লিখেছিলেন, ‘ভালোবাসাবাসির ব্যাপারটা হাততালির মতো। দুটা হাত লাগে। এক হাতে তালি বাজে না। অর্থাৎ একজনের ভালোবাসায় হয় না...’সত্যিই পৃথিবীর শ্রেষ্ঠ উপহার হচ্ছে ভালোবাসা। ‘আমি তোমাকে ভালোবাসি’। শব্দটির সঙ্গে আমরা সবাই পরিচিত। প্রিয় মানুষকে এই রোমান্টিক শব্দ কয়টি বলা কিংবা তার মুখ থেকে শোনা দুটিই সুমধুর। এই তিন শব্দেই মানুষ তাদের ভালোবাসা, আকাঙ্খা, স্নেহ, প্রশংসা সবকিছুই অন্যের কাছে প্রকাশ করে। এটি ভালোবাসার মানুষের কাছে যেন ‘বিশেষ

‘টিকটিকি ডাকলে কথা ফলে যায়’, কেন এমন বলা হয় জানেন?

  

পিএনএস ডেস্ক : টিকটিকি৷ শুনলে বা দেখলে ঘিনঘিন করলেও টিকটিকি পড়া নিয়ে নানা জন নানা মতে বিশ্বাসী৷ পিঠে হোক বা পায়ে, হাতে হোক বা মাথায়, রয়েছে বহু ব্যাখ্যা৷ কোনওটাতে হতে পারে আপনি ধনী, কোনওটাতে আবার নিঃস্ব৷এসব নিয়ে রয়েছে তর্ক-বিতর্কও৷ কেউ বিশ্বাসী, কেউবা তার উল্টো৷ আবার কোনও কথার সময় টিকটিকি ডেকে উঠলে তা সত্যি হবে বলেও মনে করেন অনেকেই৷ কিন্তু টিকটিকি নিয়ে এত সব ব্যাখ্যা কেন? কোনওদিন ভেবে দেখেছেন কি টিকটিকির ডাক নিয়ে এত হইচই কিসের? মনে করা হয়, পূর্বে খনা নাম এক সত্যবাদী মহিলা

লাগবে না কোনও জ্বালানি, এবার ঠাণ্ডা জলে ভিজিয়ে রাখলেই তৈরি হবে ভাত!

  

পিএনএস ডেস্ক: ঠাণ্ডা জলে দিব্যি তৈরি ভাত? শুনেছেন কখনও? না শুনে থাকলেও, এবার তা খাবার সুযোগ মিলবে। কারণ নতুন বছরে রাজ্যবাসীর কাছে কৃষি বিজ্ঞানীদের উপহার কোমল ধান। এই ভাত রান্না করতে লাগবে না কোনও জ্বালানি। বাঁচবে সময়ও।কোমল। নামেই পরিচয়। কোনও জ্বালানির প্রয়োজন নেই। ভয় নেই হাত পোড়ার। আধ ঘণ্টা ঠাণ্ডা জলে ভিজিয়ে রাখলেই ফুলে উঠবে এই ধানের চাল। সবজি, মাছ-মাংস দিয়ে সেভাবে খাওয়া না গেলেও, দই-গুড় দিয়ে অনায়াসেই খেতে পারেন কোমল ভাত। দশ বছর ধরে নদিয়ার ফুলিয়ায়, রাজ্য সরকারের কৃষি প্রশিক্ষণ

জোকস: ভ্যালেন্টাইন রঙ্গ এবং চোখে চোখে চা...

  

পিএনএস ডেস্ক : চাকরির ইন্টারভিউ চলছে। চাকরিপ্রার্থী ইন্টারভিউ বোর্ডকে প্রভাবিত করতে সব প্রশ্নের উত্তর ইংরেজিতে দিতে চাচ্ছে। কিন্তু ব্যাকরণে দুর্বলতার কারণে তার উত্তর কেউ বুঝছে না। এমন অবস্থায় বোর্ড সভাপতি তাকে বিনীতভাবে বললেন- প্রশ্নের উত্তর বাংলাতে দিলেই ভাল।চাকরিপ্রার্থী: ওকে, স্যার। চেয়ারম্যান: এবার বলুন, আপনার যোগ্যতা কি?চাকরিপ্রার্থী: চোখে চোখে চা!চেয়ারম্যান: শাট আপ! বেআদপ কোথাকার!চাকরিপ্রার্থী: স্যার, রাগ করছেন কেন?চেয়ারম্যান: রাগ করবো না মানে? তোমাকে প্রশ্ন করলাম

টয়লেটে বসে স্মার্টফোনে ভিডিও গেমস খেলার ভয়াবহ পরিণতি!

  

পিএনএস ডেস্ক: চীনের এক ব্যক্তি টয়লেটে বসার পর একটা সময় কাজ শেষ হলেও স্মার্টফোন থেকে উঠতে পারছিলেন না এক সময় তার মলদ্বারের মধ্য থেকে একটি পিণ্ড বেরিয়ে আসে।খবরটা গা শিউরে ওঠার মত যারা টয়লেটে বসে সব ভুলে গিয়ে স্মার্টফোনে ভিডিও গেমসে মগ্ন হয়ে যান। সম্প্রতি দক্ষিণ-পূর্ব চীনের ঝংশানে এ ঘটনা ঘটে।জানা যায়, চীনের এক ব্যক্তি টয়লেটে বসার পর স্মার্টফোনে ভিডিও গেমস নিয়ে আসক্ত হয়ে পড়েন। আর এতেই তাকে চরম মূল্য দিতে হয়। তার মলদ্বারের মধ্য থেকে একটি পিণ্ড বেরিয়ে আসে। ওটা ঝুলেছিল তার মলদ্বারে। ছয়

Developed by Diligent InfoTech