চিত্র-বিচিত্র

যেভাবে মৃত্যু ডেকে আনতে পারে কবুতর!

  

পিএনএস ডেস্ক : শখ করে কবুতর পোষেন এমন মানুষের সংখ্যা কম নয়। আর এই পোষা পাখিদের যত্ন করার জন্য রোজ নানাভাবে কবুতরের সংস্পর্শে আসেন তারা। কিন্তু জানেন কি, এই নিরীহ পাখিটিই কিন্তু আপনার মৃত্যুর কারণ হয়ে দাঁড়াতে পারে।সম্প্রতি গ্লাসগোতে একটি হাসপাতালে একটি শিশুর মৃত্যুর জন্য দায়ী করা হচ্ছে কবুতরের বিষ্ঠার সাথে সম্পর্কিত এক ধরনের প্রদাহকে।কুইন এলিজাবেথ হাসপাতালে অন্য একটি সমস্যা নিয়ে ভর্তি ছিল শিশুটি। হাসপাতালে থাকা অবস্থাতেই কবুতরের বিষ্ঠা থেকে 'ক্রিপটোকক্কাস' নামক এক ধরনের ছত্রাক

বাথরুমের কমোডে অজগর! অতঃপর...

  

পিএনএস ডেস্ক : মাত্রই বাথরুমে ঢুকেছিলেন। ভেবেছিলেন, নিশ্চিন্তে শৌচকর্ম সেরে বেরিয়ে আসবেন। কিন্তু তা আর হল না। কমোডের ঢাকনা তুলেই আঁতকে উঠলেন এক ব্যক্তি। ছিটকে বাইরে বেরিয়ে এলেন তিনি। এসে যা শোনালেন, তাতে আঁতকে উঠলেন পরিবারের সবাই। উঁকি দিয়ে দেখলেন, সত্যিই বটে। কমোডের মধ্যে গুটিসুটি মেরে পড়ে রয়েছে আস্ত এক অজগর সাপ।অস্ট্রেলিয়ার ব্রিসবেনের পশ্চিম উইনামের একটি বাড়িতে এই ঘটনা ঘটেছে। শুক্রবার বিষয়টি সামনে এনেছে ব্রিসবেন বন দফতরের সরীসৃপ বিভাগ। নিজেদের ফেসবুক পেজে কমোডের মধ্যে থাকা অবস্থায়

অতিথি পাখির মেলা

  

পিএনএস ডেস্ক: পঞ্চাশ গজ দূরেই ওপারে ভারতের কাঁটাতারের বেড়া। পাশেই সবুজ বেষ্টনীঘেরা যশোরের শার্শা উপজেলার লক্ষ্মণপুর ইউনিয়নের দুর্গাপুর গ্রাম। সীমান্তঘেঁষা বেনাপোল থেকে ১০ কিলোমিটার উত্তরে। বায়ু পরিবর্তনের সঙ্গে মাঘের হাড় কাঁপানো শীতে বিভিন্ন প্রজাতির দেশি-বিদেশি পরিযায়ী অতিথি পাখির আগমনে মুখরিত শার্শার পদ্মবিল।এই বিলে নিরাপদ আশ্রয় গড়ে তুলেছে অতিথি পাখিরা। পুরো শীতকাল এখানেই কাটিয়ে দেবে তারা। তাদের দেখে মনে হয়, যেন অতিথি পাখির মেলা বসেছে। তাদের কলতানে মুখর এই বিল।দুর্গাপুর গ্রামের পাশেই

জেনে নিন বিশ্বের সবচেয়ে সুখী-অসুখী দেশ কোনটি!

  

পিএনএস ডেস্ক : জাতিসংঘের ওয়ার্ল্ড হ্যাপিনেস রিপোর্টের ২০১৮ সালের সংস্করণে এবারেও ইউরোপের উত্তরের দেশগুলির প্রাধান্য, কেননা, এবারের চ্যাম্পিয়ন ৫৫ লাখ বাসিন্দার দেশ ফিনল্যান্ড। তবে শীর্ষ দশের বাইরে ওঠানামাও চোখে পড়ার মতো।বিশ্বের সবচেয়ে সুখী দেশ২০১৮ সালের ‘ওয়ার্ল্ড হ্যাপিনেস রিপোর্ট’ অনুযায়ী, বিশ্বের সবচেয়ে সুখী দেশ হলো ফিনল্যান্ড। তারপরেই আছে যথাক্রমে নরওয়ে, ডেনমার্ক, আইসল্যান্ড ও সুইজারল্যান্ড।বিশ্বের সবচেয়ে অসুখী দেশবিশ্বের সবচেয়ে অসুখী দেশগুলো হলো বুরুন্ডি, সেন্ট্রাল

বড় পুরুষাঙ্গ দেখে খেলোয়াড় বাছাই করেন নারী কোচ!

  

পিএনএস ডেস্ক : পুরুষাঙ্গের মাপ দেখে তবেই দলের ফুটবলার বাছাই করেন মহিলা কোচ! লিঙ্গবৈষম্য নিয়ে প্রশ্ন আসতেই সাংবাদিকদের একহাত নিলেন জার্মানের মহিলা ফুটবল কোচ। জার্মানের পঞ্চম ডিভিশন ফুটবল লিগে প্রথম মহিলা কোচ হিসেবে নিয়োজিত হন ইমকে উবেনহোর্স্ট। দলের নাম বিভি ক্লোপেনবার্গ। লিঙ্গবৈষম্যমূলক প্রশ্ন ধেয়ে আসতে এভাবেই সামাল দিলেন ইমকে।জার্মানের ফুটবল ক্লাব ক্লোপেনবার্গের কোচ ইমকে। দলে ১৫ জন পুরুষ ফুটবলার। একা মহিলা হয়ে কীভাবে সামলান? সাংবাদিকদের প্রশ্নে মাথা ঠিক রাখতে পারেননি ইমকে, আমি পেশাদার কোচ।

পেপসির যত অজানা তথ্য!

  

পিএনএস ডেস্ক : সর্বপ্রথম ১৮৯৩ সালে ব্র্যাডস ড্রিংক হিসেবে পেপসি সর্বসাধারণের কাছে পরিচিত হয়, যেটি বর্তমানে মাল্টি বিলিয়ন ডলারের ব্র্যান্ডে পরিণত হয়েছে। পৃথিবী জুড়ে অত্যন্ত জনপ্রিয় এই সফট ড্রিংকটি উৎপাদিত হয় পেপসিকো কোম্পানির মাধ্যমে। যেটি প্রায় আরো বেশ কিছু বিখ্যাত পণ্যের মালিকানাধীন। যেমন- ওয়াকার্স ক্রিস্পস, সেভেন আপ, মাউন্টেন ডিউ, নেকড জুস, নবি নাটস ইত্যাদি। ক্যালেব ব্রাডেম কর্তৃক আবিষ্কৃত এই পেপসি ড্রিংকটি প্রথম ব্র্যাডস ড্রিংক হিসেবে তৈরি করেন তার নিজস্ব ড্রাগ হাউজ ইউনাইটেড স্টেটস

এক টাকায় সিঙাড়া!

  

পিএনএস ডেস্ক : দুর্মূল্যের বাজারে নাভিশ্বাস উঠছে সাধারণ মানুষের৷ এমতাবস্থায় এক টাকায় সিঙাড়া পাওয়া যায় শুনলে যে কেউই খেতে চাইবে। ভারতের নীলগঞ্জ রোডের ওপর বেলঘরিয়ার মা কালী মিষ্টান্ন ভান্ডার নামে একটি দোকান অবস্থিত। জানা গেছে, এই দোকানেই এক টাকায় সিঙাড়া বিক্রি করা হয়। আর এই সিঙাড়া কিনে খাওয়ার জন্য প্রতিদিনই বিকেল ৪টা থেকে শুরু হয়ে ‌যায় লম্বা লাইন।আরো জানা গেছে, বিকেল ৫টা-৬টায় এক কড়াই করে দুইবার সিঙাড়া তৈরি করা হয়৷ বানানোর সঙ্গে সঙ্গেই উধাও হয়ে যায় মোট ৮০০ সিঙাড়া৷ তবে যত টাকা ও

জড়িয়ে ধরেই ধরাই এই নারীর মাসে আয় লক্ষ টাকা!

  

পিএনএস ডেস্ক: এমন একজন নারীর খোঁজ মিলেছে যিনি শুধু জড়িয়ে ধরেই লাখ লাখ টাকা ইনকাম করেন। ওই নারীর নাম রবিন স্টেইন। তিনি থাকেন মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে। একজন পেশাদার কাডলিস্ট। তাঁর কাজই জড়িয়ে ধরা। তাঁর একটি ওয়েবসাইট রয়েছে। ওই সাইটের মাধ্যমে তিনি গ্রাহকদের সঙ্গে যোগাযোগ করেন।তারপর গ্রাহকদের সঙ্গে এক থেকে চার ঘণ্টা সময় কাটান। এই সময়ে তাঁর কাজ হল শুধু গ্রাহকদের জড়িয়ে ধরা। কখনও সামনে থেকে জড়িয়ে ধরেন। কখনও বা পিছন থেকে জড়িয়ে ধরেন।এর জন্য তিনি গ্রাহকদের কাছ থেকে ৮০ মার্কিন ডলার করে নেন।

গাধার দুধ থেকে তৈরি এই সাবান!

  

পিএনএস ডেস্ক: গাধার দুধ থেকে তৈরি সাবান! ১০০ গ্রাম ওজনের এই সাবানের দাম ৪৯৯ টাকা। এমনই আকর্ষণ ছিল ভারতের চন্ডীগড় অরগ্যানিক ফেস্টিভ্যালে। ‘অরগ্যানিকো’ নামের একটি দিল্লি কেন্দ্রিক সংস্থা এই সাবান তৈরি করেছে। খবর আনন্দবাজার পত্রিকা'র। ১২ জানুয়ারি থেকে চন্ডীগড়ে শুরু হয়েছিল ‘উইমেন অফ ইন্ডিয়া অরগ্যানিক ফেস্টিভ্যাল।’ শিশু ও নারীকল্যাণ মন্ত্রণালয় এই মেলার আয়োজন করে থাকে। ১৪ তারিখ পর্যন্ত চলা এই মেলার অন্যতম আকর্যণ ছিল গাধার দুধের থেকে তৈরি সাবান। এই সাবানের জন্য গত তিন দিন ধরে ভিড় উপচে পড়েছে

মৃতদের সঙ্গে মিলন করেন যে সাধুরা!

  

পিএনএস ডেস্ক:এরা ধ্যান করেন, খান, ঘুমান এবং শ্মশানে চারিদিকে চিতায় আগুনে পুড়তে থাকা লাশের পাশেই যৌনমিলনে লিপ্ত হন। এরা নগ্ন হয়ে ঘুরে বেড়ান, মানুষের মাংস খান এবং নরকংকালের খুলি থেকে পান করেন। গাঁজায় টান দেন।আর তাদের কেবল জনসমক্ষে দেখা যায় বহুদিন পরপর কেবল কুম্ভমেলার সময়। ভারতের এই হিন্দু সাধুদের বলা হয় অঘোরি। সংস্কৃত ভাষায় অঘোরি মানে হচ্ছে ভীতিকর নয় এমন কিছু।কিন্তু বাস্তবে এই অঘোরিদের জীবনযাপনের কাহিনী মানুষের মধ্যে জাগায় একই সঙ্গে ভীতি, কৌতুহল এবং ঘৃণা ।এই সাধুদের

Developed by Diligent InfoTech